vlxxviet mms desi xnxx

গুগল ক্রোম কোন ধরনের সফটওয়্যার

0

গুগল ক্রোম শব্দটির সাথে সবাই পরিচিত। আমাদের মোবাইল এ এই সফটওয়্যার টি  ইনবিল্ড দেওয়াই থাকে। আমরা সবাই এই সফটওয়্যার টি ব্যবহার করে থাকি কিন্তু এই গুগল ক্রোম সফটওয়্যার এর সমন্ধে কতটুকু জানি? তেমন কিছুই জানি না তাইনা? চলুন না আজ একটু জানি গুগল ক্রোম কি? আর গুগল ক্রোম কোন ধরনের সফটওয়্যার  ?

গুগল ক্রোম কি?

গুগল ক্রোম হলো একটি জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার  যার ডেভেলপার ছিল গুগল। প্রতিষ্ঠাতা এরিক এমারসন স্মিডট এর হাত ধরেই গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি ২০০৮ সালে সর্বপ্রথম উইন্ডোজের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। এরপর ধীরে ধীরে লিনাক্সের বিভিন্ন ডিস্ট্রোসহ অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম গুলো সংযুক্ত করে দেওয়া হয়। 

গুগল ক্রোম ব্যবহার

গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি সম্পূর্ণ ফ্রি একটি ব্রাউজার যা বর্তামান পৃথিবীর ৪৭.২ % ইন্টারনেট ব্যবহারকারূ মানুষ তার নিত্যদিনের কাজের জন্য ব্যবহার করে থাকেন। গুগল ক্রোম ব্রাউজারটি মানুষ পচ্ছন্দের ওয়েবসাইট অ্যাক্সেস,  খবরপাঠ, ডাউনলোড, সার্চ সহ অনুবাদ এর কাজে ব্যবহার করে থাকে। 

গুগল ক্রোম কোন ধরনের সফটওয়্যার ?

গুগল ক্রোম একটি ওয়েব এবং মোবাইল ব্রাউজিং সফটওয়্যার। এই সফটওয়্যার টি তৈড়ি করা হয়েছে শুধুমাত্র ব্রাউজিং কে সহজ করে তোলার জন্য। গুগল ক্রোম কোন ধরনের সফটওয়্যার কথাটির ব্যাখ্যা যদি এককথায় দিতে চাই তাহলে বলতে হবে এটি একটি অপারেটিং সিস্টেম। আইএ৩২ এবং এক্স৮৬ প্লাটফর্মে তৈড়ি করা ক্রোম ব্রাউজারটিতে রয়েছে ৪৭ দেশের ভাষা অনুবাদ করার প্রসেসর। দীর্ঘ ৬ বছরের সাধনা ও সঙ্কা নিয়ে গড়ে ওঠা গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি প্রথমে ওয়েব সফটওয়্যার হিসেবে রিলিজ পেলেও পরবর্তীতে এটিকে মোবাইলেও এবেলএবেল করে দেওয়া হয়। 

গুগল ক্রোম অ্যাপস

গুগল ক্রোম অ্যাপস টি যখন রিলিজ করার কথা ছিল তার অনেক পরে অ্যাপসটি রিলিজ পায় এর কারন ছিল গুগলের সাবেক প্রধান নির্বাহী স্মিডট এর মতে গুগলই তখন একটি ছোট কম্পানী ছিল তখন ব্রাউজার লন্চ করার রিস্ক তারা নিতে চান নি তাই এটি ৬ বছর পর সফটওয়্যার টি রিলিজ করা হয়। জেনে মজা পাবেন মোজিলা ফায়ারফক্স সফটওয়্যার এর ডেভেলপারদের ভাড়া করে এনে গুগল ক্রোম অ্যাপস টি তৈড়ি করা হয়েছিল।

গুগল ক্রোম অ্যাপস

এবার আসুন বন্ধুরা গুগল ক্রোম সফটওয়ারের এর কিছু আকর্ষণীয় ফিচার রয়েছে যা সম্পকে হয়তো আজও আপনার অজানা। আর এই ফিচারগুলো সম্পর্কে জানার মাধ্যমে আপনি পুরোপুরি ভাবে বুঝতে পারবেন শুনে গুগল ক্রোম কোন ধরনের সফটওয়্যার ।

পিনড ট্যাব: 

আপনি গুগল ক্রোম অ্যাপস টি ব্যবহার করছেন আপনার পছন্দ এর ওয়েবসাইট টি বার বার সার্চ করতে চাইছেন না। তখন আপনি পিনড ট্যাবটি ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে আপনি খুব সহজে কম সময়ে এই সফটওয়্যারটির মাধ্যমে বার বার ওয়েবসাইট টি এক্সেস করতে পারবেন।

ডাটা সেভ মুড:

আমাদের মাঝে অনেকই আছে যাদের ওয়াই-ফাই নেই তারা মোবাইল ডাটার মাধ্যমে ব্রাউজিং করে থাকেন তাদের জন্য ডাটা সেভ মুডটি অনেক কার্যকরী বলে আমি মনে করি।

ট্রান্সলেট:

গুগল ক্রোম অ্যাপস টি তে আপনি যে কোন পেজকে ট্রান্সলেট করতে পারবেন খুব সহজে। ট্রান্সলেট এর বিশেষ ফিচার টি সর্বপ্রথম গুগল ক্রোম সফটওয়্যার এর হাত ধরে যাএা শুরু করে।

অটোসেভ পাসওয়ার্ড:

গুগল ক্রোম অ্যাপস টি তে আপনি পেয়ে যাচ্ছেন অটোসেভ পাসওয়ার্ড ফিচারটি। এই অটোসেভ পাসওয়ার্ড ফিচার টি আপনার সময় বাচাবে কারন ক্রোম এর মাধ্যমে যে কোন সাইট এ একবার সাইন ইন করলে দ্বিতীয় বার আর সাইনইন করতে হয়না। আর আপনি যদি পাসওয়ার্ড ভুলেও যান তাহলে ক্রোম এর পাসওয়ার্ড অপশনটিতে গেলে আপনি আপনার ভুলে যাওয়া পাসওয়ার্ড টি খুজে পাবেন।

ডার্ক মোড:

বর্তমানে গুগল ক্রোমের ডার্ক মোড খুবই জনপ্রিয় হয়েছে সবার কাছে এর কারণ হচ্ছে ডার্ক মোড ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার চোখের ওপর দীর্ঘ সময় মোবাইল বা ডেক্সটপ ব্যবহার করার কারণে ক্ষতির সম্ভাবনা খুবই কম থাকে। 

প্রাইভেসি:

গুগল ক্রোম অ্যাপটি খুবই শক্তিশালী একটি অ্যাপ যাতে আপনাদের সুরক্ষা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের প্রাইভেসি অপশন রয়েছে।

যেমন ধরুন আপনি যদি কোন ডেঞ্জারাস ওয়েবসাইট ব্রাউজ করতে চান তাহলে আপনাকে বারবার ওয়ার্নিং দেয়া হবে। আপনার লোকেশন যাতে ট্র্যাক করতে না পারে সেই পদ্ধতি ও এই গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি তে দেওয়া আছে। 

বুকমার্ক সেভার:

আমরা যারা ব্রাউজিং পছন্দ করি সবাই বুকমার্ক সেভ করে রাখি কিন্তু যখন পুরাতন ডিভাইস থেকে নতুন ডিভাইসে যাই তখন আমাদের পছন্দের বুকমার্ক গুলো হারিয়ে যায়। কিন্তু গুগল ক্রোমের ক্ষেত্রে এমনটা হয় না আপনি যদি জিমেইল দিয়ে গুগল ক্রোম সাইন ইন করে নেন। তাহলে ঐ জিমেইল আপনি যখন আপনার নতুন ডিভাইসে ইনপুট করবেন তখন সাথে সাথে সব তথ্য আগের মত সেটআপ হয়ে যাবে।

কুকি:

গুগল ক্রোম সফটওয়্যার এর কুকি সম্পর্কে সবাই জানেন কারো কাছে এই কুকি ভালো লাগার বিষয় হলেও অনেকের কাছে এগুলো বিরক্তিকর। আপনি যদি এই বিরক্তিকর কুকি থেকে মুক্তি পেতে চান তাহলে প্রথমে সেটিং এ যাবেন তারপর প্রাইভেসি এন্ড সিকিউরিটি অপশনে যাবেন অতঃপর ক্লিয়ার ডাটা স্টরি অপশনে যাবেন সেখানে আপনি কুকি এর অপশনটির টিকমার্ক উঠিয়ে দিয়ে সেভ করে নিবেন তাহলেই আপনি বিরক্তিকর কুকিজ থেকে রক্ষা পাবেন।

সাইট সেটিং:

বর্তমানে ব্রাউজিং করাটা অনেক ভয়ঙ্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে হ্যাকারদের জন্য। আপনি একটি ওয়েবসাইটে ঢুকে গেলেন আর সেখানে আপনার মোবাইলের বিভিন্ন পারমিশন নিয়ে নেয়া হলো। তারা আপনার ক্যামেরা থেকে শুরু করে মিডিয়া ফাইল পর্যন্ত দেখতে পারবে। কিন্তু আপনি যদি গুগল ক্রোম সফটওয়্যার এর ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি এইসব হ্যাকারদের থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে নিয়ে আসতে পারবেন।

কারন গুগল ক্রোম সফটওয়ারের রয়েছে সাইট সেটিং নামের একটি অপশন যেখানে আপনি নির্ধারণ করে দিতে পারবেন । আপনি যদি কোন সাইটে সাইন আপ করেন বা প্রবেশ করেন তখন তারা আপনার কি কি জিনিস অ্যাক্সেস করতে পারবে।

 গুগল ক্রোম ফর অ্যান্ড্রয়েড

গুগল ক্রোম 2008 সালে ডেক্সটপ কিংবা ওয়েব ইউজারদের জন্য আশীর্বাদ হয়ে এসেছিল। কিন্তু অ্যান্ড্রয়েডের জন্য এই আশীর্বাদ 2012 এর 27 জুন আসে। প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ জাভা,পাইথন,সি,সি++ এর মাধ্যমে গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি অ্যান্ড্রয়েডের জন্য লঞ্চ করা হয়।

যখন থেকে অ্যান্ড্রয়েডে গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি অফিশিয়াল ভাবে লঞ্চ হয়েছে তখন থেকেই মানুষ এটির ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে এবং প্রতিনিয়ত এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এখন পর্যন্ত প্লে স্টোর থেকে 5 বিলিয়ন বার ডাউনলোড হয়েছে গুগল ক্রোম অ্যাপস টি। এই মাইলফলক আর কোন ব্রাউজার এখন পর্যন্ত অতিক্রম করতে পারেনি।

গুগল ক্রোম আপডেট

আমি জানি অনেকেই গুগল ক্রোমের সফটওয়্যার এর আপডেট নিয়ে বিরক্ত। অনেকেই বলে থাকেন গুগল ক্রোম কোন ধরনের সফটওয়্যার   যে এই সফটওয়্যারে এত বেশি আপডেটের প্রয়োজন হয়?

আসলে যুগের সাথে সাথে আপডেট হওয়াটাই প্রয়োজন কারণ বিভিন্ন ভাইরাস ও বার্গ এর কারণে হয়তো আপনার ব্রাউজিং এক্সপেরিয়েন্স খুন্ন হতে পারে যার কারণে গুগল ক্রোম সফটওয়্যার আপডেট দেওয়া খুবই প্রয়োজন। আপনি যদি গুগল ক্রোম সফটওয়্যার এর পুরোন ভার্সন টি এখনো ব্যাবহার করছেন তাহলে আমি বলতে চাই এটি আপনার বিপদ ডেকে আনতে পারে‌। কারণ পুরনো ভার্সন এর ডেভলপিং কাজ চলে না যার কারণে পুরনো ভার্সন ইউজারদের ওপরই হ্যাকারদের নজর বেশি থাকে। এখন আপনার প্রশ্ন থাকতে পারে আপনি কিভাবে গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি আপডেট করবেন?

 গুগল ক্রোম আপডেট

আপনি যদি ডেক্সটপ ইউজার হন তাহলে গুগল ক্রোম এর একাউন্টে গিয়ে লাস্ট আপডেট নাম্বার এ ক্লিক করলেই আপনাকে দেখাবে নতুন আপডেট এসেছে কি না। আর যদি আপনি মোবাইল ইউজার হন তাহলে আপনি প্লে স্টোর থেকে খুব সহজে গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

শেষ কথা: আশা করি আপনারা জেনে গেছেন গুগল ক্রোম কি এবং গুগল ক্রোম কোন ধরনের সফটওয়্যার। সর্বশেষ আপনাদের জন্য একটি বিশেষ টিপস থাকছে সেটি হল। দেখা যায় প্রতিটি আপডেটের সাথে সাথে গুগল ক্রোম আরো বেশি জায়গা আপনার মোবাইলে দখল করে নেয়। এই সমস্যাটি থেকে রেহাই পেতে আপডেটের আগে আপনি গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি ইন্সটল করে দিন এরপর পুনরায় ডাউনলোড করে নিন এতে আপনার স্টোরেজ প্রয়োজনের থেকে বেশি খরচ হবে না।

আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি যারা আমার এই আর্টিকেলটির সাথে শেষ পর্যন্ত ছিলেন। গুগল ক্রোম সফটওয়্যার টি সম্পর্কে আপনার এক্সপেরিয়েন্স জানাতে অবশ্যই কমেন্টে আপনার মতামত জানাবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex