vlxxviet mms desi xnxx

মহাকর্ষ বল কাকে বলে? | নিউটনের মহাকর্ষ সূত্র

0

মহাকর্ষ বল কাকে বলে? | What Is Gravity?

মহাবিশ্বের যেকোন দুটি বস্তুর মধ্যে যে আকর্ষণ বল তাকে মহাকর্ষ বল বলে। প্রকৃতির মধ্যে চারটি মৌলিক বল রয়েছে এর মধ্যে মহাকর্ষ বল হলো একটি বল। মহাকর্ষের যাবতীয় বিষয় সম্পর্কে জানতে হলে মহাকর্ষ বল কাকে বলে শিক্ষার্থীদের জানতে হবে।

আরো দেখুনঃ বিজ্ঞান কাকে বলে?

মহাকর্ষ বল কাকে বলে?

মহাবিশ্বের যে কোন দুটি বস্তুর মধ্যে তা হতে পারে চাদ এবং পৃথিবী অথবা সূর্য এবং চাঁদ এদের মধ্যে যে আকর্ষণ বল কাজ করে তাকে মহাকর্ষ বল বলে।

স্যার আইজ্যাক নিউটন ১৬৮৭ খ্রিস্টাব্দে তার বিখ্যাত বই “ফিলোসফিয়া ন্যাচারালিস প্রিন্সিপিয়া ম্যাথামেটিকা” গ্রন্থে মহাকর্ষ বিষয়ে বিস্তারিত লিখেছেন।

নিউটনের মহাকর্ষ সূত্র

নিউটনের মহাকর্ষ সূত্রটি হলো, “এই মহাবিশ্বের প্রতিটি বস্তুকণা একে অপরকে নিজের দিকে আকর্ষণ করে এবং এই আকর্ষণ বলের মান বস্তু কণাদ্বয়ের ভরের গুণ ফলের সমানুপাতিক, এদের মধ্যবর্তী দূরত্বের বর্গে ব্যাস্তানুপাতিক এবং এই বল বস্তুদ্বয়ের কেন্দ্র সংযোজক সরলরেখা বরাবর ক্রিয়া করে।”

মহাকর্ষ সূত্রের ব্যাখ্যা:

মনেকরি, m1 এবং m2 ভরের দুটি বস্তুর পরস্পর থেকে r দূরত্বে অবস্থান করছে। নিউটনের সূত্রানুযায়ী মহাকর্ষের দুটি বস্তু একে অপরকে আকর্ষণ করছে। m1 বস্তুটি m2 বস্তুকে F বল দ্বারা আকর্ষণ করছে এবং m2 বস্তুটি m1 বস্তুকে F বল দ্বারা আকর্ষণ করছে। সুতরাং F1 = F2 ধরি,F1 = F2 = F। তাহলে সূত্রমতে আমরা দেখি যে,

  • F ∝ m1  m2r2
  • F = G m1  m2r2

এখানে G মহাকর্ষীয় ধ্রুবক। মহাকর্ষীয় এই ধ্রুবককে বিশ্বজনীন ধ্রুবকও বলা হয়। কারণ মহাবিশ্বের যে কোন স্থানে এর মানের কোন পরিবর্তন হয় না, এর মান একটি থাকে স্থান, কাল এবং পাত্রভেদে এই G এর মান হচ্ছে,

  •  G ≈ 6.673 1011 Nm2kg-2

বিজ্ঞানী হেমি ক্যাভেন্ডিশ প্রথমে G এর মান বের করার জন্য একটি পরীক্ষা করেন যদিও এই পদ্ধতিতে G এর মান তিনি বের করেননি। এর মাধ্যমেই মহাকর্ষীয় তত্ত্ব প্রথমবারের মতো ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করা হয়। মহাকর্ষের সূত্রমতে নির্দিষ্ট দূরত্বে অবস্থিত দুটি বস্তুর ভরের গুণফল দ্বিগুণ হলে এর বল দ্বিগুণ হবে, ভরের গুণফল তিনগুণ হলে এর বলও তিনগুণ হবে। আর নির্দিষ্ট ভরের বস্তু দুটির দূরত্ব দ্বিগুণ হলে এর বল এক-চতুর্থাংশ হবে আর দূরূত্ব তিনগুণ হলে এর বল নয় ভাগের এক ভাগ হবে। দূরত্ব চারগুণ হলে বল ষোল ভাগের এক ভাগ হবে।

G এর আদর্শ মান হলো, G ≈ 6.673  1011 Nm2kg-2 ।

আরো দেখুনঃ পরমাণু কাকে বলে?

পরিসমাপ্তি: উপরোক্ত ইনফোটিতে আমরা মহাকর্ষ বল কাকে বলে, মহাকর্ষ বল কি, নিউটনের মহাকর্ষ সূত্র এবং নিউটনের মহাকর্ষ সূত্রের ব্যাখ্যা উল্লেখ করা হয়েছে। নিউটনের সূত্রের ব্যাখ্যাটি জানতে হলে আমাদের প্রথমে জানতে হবে মহাকর্ষ বল কাকে বলে জানতে হবে। এই আর্টিকেলটিতে মহাকর্ষ বল কাকে বলে সংঙ্গা সহ বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex