vlxxviet mms desi xnxx

মাহে রমজানের শুভেচ্ছা

0

মাহে রমজানের শুভেচ্ছা বার্তা | Happy Ramadan Mubarak Wishes

আসসালামু আলাইকুম, প্রিয় পাঠক। কেমন আছেন সবাই? আশা করি আল্লাহর অশেষ রহমতে ভালোই আছেন। ২০২১ সাল প্রায় শেষ হয়ে এলো। এরপর ২০২২ সালের রমজান এপ্রিলে শুরুতেই। ২০২১ সালের রমজান শুরু হয়েছিলো ১৪ এপ্রিল। ২০২২ সালেও এপ্রিলেই রমজান শুরু হবে বলে আশা করা যায়। হিজরি মাসগুলো চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে ধরা হয়। তবুও আনুমানিক ২ এপ্রিল পবিত্র রমজান শুরু হতে পারে বলে মনে করা হয়।

সবাইকে জানিয়ে রাখছি পবিত্র মাহে রমজানের অগ্রিম শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। পবিত্র কুরআনে ঘোষিত রমজান মাস হচ্ছে ১২ টি মাসের মধ্যে সর্বোত্তম মাস। কারন এই মাসে আল্লাহর জন্য সবাই রোজা রাখে। সংযমের মাস, ধৈর্যের মাস, শান্তি- সম্প্রীতি, ত্যাগ-তিতিক্ষার মাস এই রমজান মাস বা রোযার মাস। এ মাসের আমল মহান আল্লাহর কাছে সবচেয়ে বেশি প্রিয় এবং আল্লাহ এই মাসে কবর আযাব পর্যন্ত থামিয়ে দেন।

তাই আমাদের উচিত আগে থেকেই রমজান মাসের প্রস্তুতি গ্রহণ করা। নিজেরা  প্রস্তুতি গ্রহণ করার সাথে সাথে অন্যদেরকেও স্মরণ করিয়ে দিতে পারি রমজানের শুভেচ্ছা বিনিময়ের মাধ্যমে। আগেই বলে নেই পবিত্র  রমজানের সংবাদ আগে দেওয়ার অনেক ফজিলত রয়েছে। আল্লাহ খুশি হোন। তাই রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়ে বার্তা দিয়ে আপনি কিন্তু সওয়াবের ভাগীদারও হচ্ছেন। চলুন তাহলে পরবর্তী স্টেপগুলোতে দেখে নেই মাহে রমজানের শুভেচ্ছা, স্ট্যাটাস কেমন হতে পারে।

মাহে রমজানের শুভেচ্ছা

রমজান চলে এলেই সবাইকে শুভেচ্ছা জানানো ধুম পরে যায়। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই আবার চলে এলো ২০২২ সালের রমজান মাস। সময় কত দ্রুত চলে যায়। গুগলে সবচেয়ে বেশি সার্চ করা প্রশ্নের মধ্যে এটি একটা প্রশ্ন যে, ২০২২ সালের রমজান কত তারিখ। আর মাহে রমজানের শুভেচ্ছা লিখেও অনেকে সার্চ করে থাকেন। সবাই-ই এই শুভেচ্ছা জানাতে আগ্রহী হয়ে পরেন। মাস, দিন, তারিখ খেয়াল করে শুভেচ্ছা জানানো উচিত।

শুভেচ্ছা জানানো হয় অনেকভাবে। ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার মাধ্যমে, এসএমএস এর মাধ্যমে কিংবা সরাসরি। পুরো মাসটি সংযমের মাস। এই মাসে আমরা সবধরনের ইবাদত বন্দেগিতে মশগুল হয়ে পরি। বিশেষত রোজা, নামাজ ও দান-সাদকাহ। আর এগুলো অনেক বেশি উপভোগ্যও বটে। মুসলমানদের অনেক আনন্দে কাটে প্রতিটি রমজান মাস। তাই এই আনন্দ সবার সাথে শেয়ার করতেই আমরা শুভেচ্ছা জানিয়ে থাকি।

আরো দেখুনঃ

আমাদের আজকের এই আয়োজনটি আমরা মাহে রমজানের শুভেচ্ছা, বাংলা-ইংরেজী স্ট্যাটাস, দারুণ দারুণ পিকচার কালেকশন দিয়ে সাজিয়েছি। এগুলো ব্যবহার করে আপনি আপনার স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, প্রতিবেশী সবাইকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানাতে পারবেন। তাহলে পরের অংশ থেকে দেখে নিন রমজানের স্ট্যাটাস, এসএমএস বা বার্তা এবং রমজানের জন্য ডিজাইন করা সুন্দর সুন্দর ছবি।

রমজানের স্ট্যাটাস

রমজানের শুভেচ্ছা জানানোর জন্য স্ট্যাটাস খুঁজছেন? ২০২২ সালের পবিত্র রমজান মাস প্রায় চলে এসেছে। প্রতি রমজানের আগে রমজানের চারিদিকে যেনো খুশির ঢল নামে। এই খুশিতে অবশ্যই আপনার মন চাইবে ফেসবুকে কিছু একটা লিখতে। ফেসবুকে সবাইকে রমজানের শুভেচ্ছা জানানোর জন্য দারুণ দারুণ স্ট্যাটাস কালেকশন রয়েছে। নিচে কিছু দেওয়া হলঃ

১. সবাইকে রমজানের অনেক অনেক শুভেচ্ছা। আল্লাহ আমাদের সবার প্রতিটি রোজা রাখার তোফিক দান করুন, আমীন।

২. আল্লাহ আমাদের সবগুলো রোজা রাখার এবং দান-সাদকাহ করার তোফিক দান করুন, আমীন।

৩. হে আল্লাহ! তুমি এই পবিত্র মাসের সব রোজা রাখার তৌফিক দান করো এবং আমাদের আমাদের সকল ইবাদত কবুল করে আমাদের সকল পাপ মাফ করে দিন, আমীন।

৪. নিজেকে পরিশুদ্ধ করে নেওয়ার মাস রমজান মাস, শুভ মাহে রমজান।

৫. এসেছে ইমানকে তাজা রাখার সুবর্ন সুযোগ, রইলো রমজানের শুভেচ্ছা

৬. দান-সাদকাহ করার মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের মাস এসে গেলো, শুভ রমজান।

৭. গরিব দুঃখীদের কষ্ট বুঝে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের মাস এসে গেলো। শুভ রমজান।

৮. রমজান এমন একটি মাস যখন মহান আল্লাহ পাক কবর আযাব ও বন্ধ করে দেন। শুভ রমজান।

৯. রমজান ধৈর্য্য ধারণ করার মাস, আর ধৈর্য্যশীলরা আল্লাহর নিকট প্রিয়। শুভ রমজান।

১০. মহান আল্লাহর ক্ষমাশীল, তিনি ক্ষমা করতে ক্ষ্যান্ত হন না। আর তার কাছ থেকে ক্ষমা চেয়ে নেওয়ার উত্তম মাস রমজান মাস। শুভ রমজান।

রমজানের শুভেচ্ছা এসএমএস

এই মাগফিরাত বা নাজাতের মাসটি সবার ভালো কাটুক এটাই সবার কাম্য। সবাই একসাথে সিয়াম পালন করা, তারাবীহের নামাজ আদায় করার মজাই আলাদা। এই আনন্দ কারো সাথে শেয়ার না করে পারা যায় না। মাহে রমজানের শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস দিতে না চাইলে এসএমএস করেও জানাতে পারেন। এর মাধ্যমে আরো বেশি এটেনশান নিতে পারবেন। তবে একটা জিনিস খেয়াল রাখবেন, অনেকে মেসেজ ফরোয়ার্ড করলে বিরক্ত বোধ করতে পারেন।

গুরুত্বপূর্ণ: মাহে রমজান ২০২২ সময়সূচী.

তাই চেষ্টা করবেন মেসেজ ফরোয়ার্ড না করতে। যেকোনো লেখা কপি করে পেস্ট করে পাঠাবেন। তাহলে ওই ব্যক্তি বুঝতে পারবে আপনি তাকেই পাঠিয়েছেন। সবাইকে পাঠানো আপনার উদ্দেশ্য না। এসএমএস করা যায় এমন কয়েকটি লেখা নিচে দেওয়া হলোঃ

১. পবিত্র রমজান মাসের জন্য রইলো অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

২. প্রস্তুতি নিচ্ছেন তো! রমজান কিন্তু এসে গেলো। শুভ রমজান।

৩. আল্লাহর আমাদের সবার রোজা এবং রোজার মাসের সব আমল কবুল করে নিক, আমীন।

৪. রমজান মাস ধৈর্য্যশীলদের জন্য আনন্দের মাস। রমজানের জন্য রইলো শুভ কামনা।

৫. রমজান মাসে বেশি বেশি দু’আ করুন এবং আলাহর কাছ থেকে মাফ চেয়ে নিন। শুভ রমজান।

৬. নিজেকে পরিশুদ্ধ করে নেওয়ার মাস রমজান মাস, শুভ রমজান।

৭. এসেছে রমজান মাস। ধৈর্য্য ধারণ করার মাস, নিজেকে পাপ কাজ থেকে সংযত রাখার মাস রমজান মাস।

৮. রমজান মাসে আল্লাহ আমাদের হেদায়াত দান করুন, আমীন।

৯. নিজের মনকে ইমানের আলোয় আলোকিত করে নেওয়ার সময় এসে গেছে, শুভ রমজান।

১০. রমজান কাটুক রোজা, বিভিন্ন আমল ও দান-সাদকাহর মাধ্যমে। শুভ রমজান।

রমজান হাদিস বা উক্তি

রমজানের এই মাসটি গুণাহ মাফের মাস। আল্লাহ চাইলে আমাদের সবার সব গুণাহ মাফ করে দিতে পারেন। এই মাসটিতে কবরের আযাব পর্যন্ত হয় না। কবরবাসীরা এই মাসে কবরে শান্তিতে ঘুমায়। কত রহমত ও বরকতময় মাস, সুবহানাল্লাহ। এই শ্রেষ্ঠ মাসটিতে আপনি চাইলে হাদিস শেয়ার করে সকলকে অনুপ্রেরণা দিতে পারেন। একটি হাদিস শেয়ার করার মাধ্যমে আপনি সওয়ার ও পেয়ে গেলেন, আর অন্যকেও রমজান মাসের গুরুত্ব উপলব্ধি করাতে পারলেন।

পবিত্র রমজান মাসের কিছু হাদিস নিচে দেওয়া হল। এগুলো আপনি স্ট্যাটাস, এসএমএস, ফেসবুক স্টোরি বা অন্য যেকোনো সোশাল মিডিয়ায় যেকোনোভাবে জানাতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন, আপনি যেই হাদিসই শেয়ার করেন না কেনো তা যেনো সহিহ হয়। ভুল ভাল হাদিসে চারিদিক সয়লাব। সেগুলো ব্যবহার করে কাউকে বিভ্রান্ত না করাই শ্রেয়। তাই সতর্ক থাকতে হবে। তাহলে চলুন নিচে কয়েকদিন সহীহ হাদিস দেখে নিইঃ

১. ‘‘শ্রেষ্ঠ দান হল, রমাযান মাসে দান।’’[হাদিস নং 10]

২. রমাযানের পর শ্রেষ্ঠ রোযা, রমাযানের তা’যীমে শা’বানের রোযা এবং সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ সদকা হল রমাযানের সদকা।’’[হাদিস নং 9]

৩. ‘‘মক্কার একটি রমাযান অন্য জায়গার হাজার রমাযান অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ।’’[হাদিস নং 20]

৪. ‘‘মদ্বীনার একটি রমাযান অন্য জায়গার হাজার রমাযান অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ।’’[ হাদিস নং 21]

৫. ‘‘আমার উম্মতকে রমাযানে পাঁচটি জিনিস দান করা হয়েছে; যা ইতিপূর্বে কোন উম্মতকে দান করা হয় নি। ইফতার করা পর্যন্ত পানির মাছ অথবা ফিরিশ্তারা তাদের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করে। আল্লাহ প্রত্যেক দিন বেহেশ্ত্কে সুসজ্জিত করে থাকেন।–’’[ হাদিস নং 11]

৬. ‘‘রমাযান মাসের একটি তসবীহ অন্য মাসের হাজার তসবীহ অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ।’’[হাদিস নং 16]

৭. ‘‘আল্লাহ কিরামান কাতেবীনকে অহী করেছেন যে, আমার রোযাদার বান্দাদের আসরের পর কৃত কোন পাপ লিপিবদ্ধ করো না।’’[হাদিস নং 23]

৮.’‘যে ব্যক্তি মক্কায় রমাযান পেয়ে সেখানে রোযা রাখে এবং যথাসাধ্য রাতের নামায পড়ে, আল্লাহ তার জন্য অন্য জায়গার ১ লাখ মাস রমাযানের সওয়াব লিখে দেন—।’’[হাদিস নং 19]

১১। ‘‘তিন ব্যক্তিকে পানাহারের নিয়ামত সম্পর্কে প্রশ্ন করা হবে না; ইফতারকারী, সেহরী খানে-ওয়ালা—-।’’[হাদিস নং 22]

১৩. ‘‘যে ব্যক্তি রোযার (শেষ) দশকে ই’তিকাফ করবে, তার দুটি হজ্জ ও দুটি উমরাহ করার সমান সওয়াব লাভ হবে।’’[49]

১৪. ‘‘রমাযান বলো না। কারণ, ‘রমাযান’ হল আল্লাহর অন্যতম নাম। বরং তোমরা রমাযান মাস বলো।’’[50]

১৫. ‘‘যে ব্যক্তি আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে একদিন রোযা রাখবে, তার কাছ থেকে জাহান্নামকে এত দূরের পথ করে দেবেন; যে পথ একটি কাক ছানা অবস্থা থেকে বুড়ো হয়ে মরা পর্যন্ত উড়ে অতিক্রম করতে পারে।[51]

১৬. ‘‘মুসলিম রোযা রাখলে —- পাপ থেকে সেই রকম বেরিয়ে আসে, যেমন সাপ বেরিয়ে আসে তার খোলস থেকে।’’[52]

১৭. ‘‘মুসলিম রোযা রাখলে —- পাপ থেকে সেই রকম বেরিয়ে আসে, যেমন বেরিয়ে আসে মায়ের পেট থেকে নিষ্পাপ হয়ে।’’[53]

১৮. ‘রমাযানের রোযা আকাশ ও পৃথিবীর মাঝে লটকানো থাকে। ফিতরা দিলে তবেই তা উত্থিত করা হয়।’’[48]

২০. আবূ হুরাইরাহ্ (রাঃ) হতে বর্ণিত। আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যখন রমাযান আসে তখন জান্নাতের দরজাসমূহ উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। (সহিহ বুখারী ১৮৯৯, ৩২৭৭, মুসলিম ১৩/১, হাঃ ১০৭৯, আহমাদ ৮৬৯২)

রমজান পিকচার | Ramadan Mubarak Pics

রমজান মাসের শুভেচ্ছা জানানোর জন্য ছবি বা পিকচার খুজছেন? রমজানকে উপলক্ষ করে সুন্দর সুন্দর ডিজাইনেবল পিকচার পাঠিয়েও মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানাতে পারে। অনেকে লেখা পড়তে চান না। ডিজাইনেবল দুর্দান্ত কিছু ছবি রয়েছে যা তাদের আকৃষ্ট করতে পারে। এরকম কিছু সংগৃহীত ছবি নিচে দেওয়া হলঃ

Ramadan Mubarak Pics

 উপসংহার: পবিত্র রমজান মাসের জন্য আমাদের শুভেচ্ছা জানানোর বিভিন্ন বার্তা, ছবি এবং স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে। এই শুভেচ্ছার মাধ্যমে আপনি অন্যকে রমজান মাস সওয়াবের সাথে পালন করতে উৎসাহিত করে তুলতে পারেন। নিজের খুশি ও অনাবিল আনন্দ সবার মাঝে বিলিয়ে দিতে পারেন। আপনার মাধ্যমে উৎসাহিত হয়ে অন্য কেউ রমজান মাসকে উপভোগ করলে আপনারই ভালো লাগবে। আবার আপনি সহীহ হাদিস শেয়ার করার মাধ্যমে পেয়ে যাচ্ছেন সওয়াব। এর মাধ্যমেও আল্লাহর চাইলে আপনাকে নাজাত দিতে পারেন।

গুরুত্বপূর্ণ: রমজান মাসের ক্যালেন্ডার.

আশা করি, মাহে রমজানের শুভেচ্ছা নিয়ে আপনাদের আর কোনো প্রশ্ন নেই। যদি কোনো কিছু জানার থাকে আমাদেরকে জানাতে পারেন কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে। আমরা অতি দ্রুত সারা দিতে চেষ্টা করবো ইন শা আল্লাহ। আপনার জন্য রইলো রমজানের অনেক অনেক শুভেচ্ছা। আল্লাহ আমাদের সকলের সব গুণাহ মাফ করে আমাদের রোজা, দান-সাদকাহ সহ সকল ইবাদত কবুল করে নিন, আমীন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex