vlxxviet mms desi xnxx

কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায়

0

কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায়

বর্তমানে আমরা কমবেশি সবাই কম্পিউটার ব্যবহার করি। কম্পিউটার ব্যবহার করার ফলে আমরা অনেক ধরনের সফটওয়ার এবং অনেক ধরনের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করি। আর এর ফলে ভাইরাস এবং অপ্রয়োজনীয় ফাইল কম্পিউটারের জমা হয়ে কম্পিউটারের গতি হ্রাস করে দেয়। আর তার জন্য কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করতে হয়।

কিন্তু কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায় অনেকেই জানেন না। তাই আজ আপনাদের জন্য আমরা কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায় সম্পর্কিত একটি আর্টিকেল নিয়ে এসেছি। যাতে করে আপনারা খুব সহজে কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করতে পারেন এবং অপ্রয়োজনীয় ফাইল নিমিষেই ডিলিট করে স্বাচ্ছন্দে কম্পিউটারে কাজ করতে পারেন। চলুন তাহলে জেনে নিন কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায়।

কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায়

কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার জন্য কিছু প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ রয়েছে। আরে গুলো সঠিকভাবে অনুসরণ করলে আপনার কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে। তাছাড়া আপনারা যদি কম্পিউটারের গতি ঠিক না রাখেন তাহলে ও প্রয়োজনীয় ফাইল এবং ভাইরাস জমা হয়ে আপনার কম্পিউটার কে ধ্বংস করে দিতে পারে।

তাই নিয়মিত কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের উচিত কম্পিউটারের অপ্রয়োজনীয় জিনিস গুলো ডিলিট করে কম্পিউটারের গতি ঠিক রাখা। কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায় সমূহ নিম্নে দেয়া হল-

জাঙ্ক ফাইল দূর করা:

আমরা কম্পিউটারের বিভিন্ন ধরনের ফাইল রেখে থাকি কিন্তু কিছু ফাইল আছে জাঙ্ক ফাইল যে ফাইলগুলো কম্পিউটারের গতি কমিয়ে দেয়। আরে ও প্রয়োজনীয় ফাইলগুলো অবশ্যই আমাদের নিয়মিত ডিলিট করতে হবে। আর তার জন্য আপনাদের কম্পিউটারের টাস্কবারে সার্চ অপশনে গিয়ে run লিখে সার্চ করতে হবে।

এরপর সেখানে একটি খালি বক্স দেখা যাবে সেই বক্সে আপনাদের নিম্নে দেয়া ফিচার গুলো লিখে এন্টার প্রেস করলে আপনাদের ফাইলগুলো অটোমেটিক ডিলিট হয়ে যাবে। এবং কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে।

  • Prefetch
  • %temp%
  • Tree

আর ঠিক এভাবেই আপনারা আপনাদের কম্পিউটারের অপ্রয়োজনীয় ফাইলগুলো দূর করতে পারবেন।

অপ্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম দূর করা:

কম্পিউটারের যে সকল প্রোগ্রাম আপনার প্রয়োজন নেই সেই সকল প্রোগ্রাম ডিলিট করলে আপনার কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে। আর প্রোগ্রাম গুলো ডিলিট করার জন্য আপনাকে প্রথমে স্টার্ট মেনু তে গিয়ে Control Pannel যেতে হবে।

এরপর সেখান থেকে Program and Festure নামক অপশনে গিয়ে প্রোগ্রামগুলো সিলেক্ট করে রিমুভ করে দিতে হবে। ঠিক এভাবেই আপনার অপ্রয়োজনীয় প্রোগ্রামগুলো কম্পিউটার থেকে দূর করতে পারবেন। 

ভাইরাস মুক্ত করা:

কম্পিউটারের অনেক সময় সফটওয়্যার ডাউনলোড করার সময় এবং অন্যান্য ওয়েব সাইটে প্রবেশ করার সময় কম্পিউটারের মধ্যে ভাইরাসযুক্ত হয়ে যেতে পারে। তাছাড়া কম্পিউটারে বিভিন্ন ধরনের ফাইল ডাউনলোড করার সময় কম্পিউটারে ভাইরাস এটাক করতে পারে। আর ভাইরাস  থেকে কম্পিউটার অবশ্য মুক্ত করতে হবে।

আরো দেখুনঃ জনপ্রিয় এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার কোনটি.

তা না হলে আপনার কম্পিউটার যেকোনো সময় অকেজো হয়ে যেতে পারে। এবং ভাইরাস যখন কম্পিউটারে যুক্ত হয় তখন কম্পিউটারের গতি অনেকটাই কমে যায়। আর তার জন্য আপনাদের অবশ্যই ভালো মানের একটি এন্টিভাইরাস ব্যবহার করতে হবে। নতুবা আপনাদের যেকোনো সময় প্রয়োজনীয় ফাইলগুলো ধ্বংস হয়ে যেতে পারে। এন্টিভাইরাস দেয়ার পাশাপাশি আপনার ফাইলগুলো রক্ষা পাবে এবং আপনার কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে।

হার্ডডিক্স এর প্রয়োজনীয় ফাইল দূর করা:

মূলত কম্পিউটারের সব কিছু হার্ডডিক্সে জমা থাকে আর এই হার্ডডিক্সের ও প্রয়োজনীয় ফাইলগুলো করলে আপনার কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে। আর এই হাদীসের ও প্রয়োজনীয় ফাইলগুলো দূর করার জন্য আপনাদের প্রথমে স্টার্ট মেনু তে গিয়ে আপনাদের ডিস্ক ক্লিনার লিখে এন্টার প্রেস করতে হবে।

এখন আপনি যে ড্রাইভ পরিষ্কার করতে চান বাজে ড্রাইভের ফাইলগুলো দূর করতে চান সেগুলো সিলেক্ট করতে হবে। এখানে আপনাকে খুব সাবধানতার সাথে ফাইলগুলো ডিলিট করতে হবে। কারণ অল সিলেট করলে আপনাদের সকল ফাইল ডিলিট হয়ে যাবে। আর তাই আপনারা যে নির্দিষ্ট ফাইলটি ডিলিট করতে চান শুধুমাত্র সেই নির্দিষ্ট ফাইলটি সিলেক্ট করে দেখিয়ে দিতে হবে।

সফটওয়্যার বুস্টার:

কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার জন্য কিছু থার্ড পার্টি হিসেবে সফটওয়্যার রয়েছে। যা ব্যবহার উইন্ডোজ ১০ এ আপনারা ব্যবহার করতে পারেন এবং আপনার কম্পিউটারে যদি কোনো যান থাকে সেগুলো পরিষ্কার করে নিতে পারবেন।

তবে অনেক সময় এ ধরনের সফটওয়্যার অনেক ধরনের ভাইরাস তৈরি করে। সুতরাং এ ধরনের সফটওয়্যার ব্যবহার করার পূর্বে অবশ্যই সতর্কতার সাথে ব্যবহার করতে হবে। এছাড়া আপনারা এ ধরনের সফটওয়্যার ব্যবহার করার ক্ষেত্রে যেগুলো প্রিমিয়াম সফটওয়্যার সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

প্রিমিয়ার সফটওয়্যার গুলো আপনাদের ডলার খরচ করে ক্রয় করতে হবে। সাধারণত এ ধরনের সফটওয়্যার গুলো কেনার জন্য 40 জনের মতো প্রয়োজন হয়।

আনইন্সটল:

কম্পিউটারের যে সফটওয়্যারগুলো আপনার প্রয়োজন নেই সেই সকল সফটওয়্যার আপনার কম্পিউটারের জায়গা দখল করে নিচ্ছে। সেগুলো আপনারা আনইন্সটল করে নিতে পারেন। আর এই সফটওয়্যার গুলো যদি আপনার আনইন্সটল করেন তাহলে আপনার কম্পিউটারের মেমোরি জায়গা খালি হবে এর পাশাপাশি কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে।

অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার গুলোর র‍্যামের উপর চাপ সৃষ্টি করে, র‍্যাম  অকেজো করে দেয়।অপ্রয়োজনীয়’ সফটওয়্যার গুলো আনইন্সটল করার জন্য আপনাদের প্রথমে উইনডোজের লোগণ স্টার্ট বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর Apps and features এ ক্লিক করে অ্যাপস এর লিস্ট দেখতে পাবেন। সেখান থেকে আপনাদের যে অ্যাপস গুলো প্রয়োজন নেই সে অ্যাপসগুলো আমি ইনস্টল করে নিতে পারবেন।

এছাড়াও আপনারা সেটিংস থেকে কন্ট্রোল প্যানেলে গিয়ে অ্যাপসগুলো আমি ইনস্টল করে নিতে পারেন।

এসএসডি ইনস্টল:

আপনার কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার জন্য আপনারা এসএসডি ইন্সটল করতে পারেন। অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের ভারি ভারি সফটওয়্যার ব্যবহার করার ফলে আপনার কম্পিউটারের গতি হ্রাস পায়। আর এই গতি বৃদ্ধি করার জন্য আপনারা আলাদাভাবে আপনার কম্পিউটারে এসএসডি কার্ড কিনে বসাতে পারেন।

এরপর এসএসডি কার্ড টি ইন্সটল করে আপনার কম্পিউটারের গতি ঠিক রাখতে পারেন। আপনারা এসএসডি কার্ড ব্যবহার করলে বুঝতে পারবেন আগের তুলনায় আপনার কম্পিউটার কতটা দ্রুতগতিতে চালাতে পারছেন। গ্রাফিক ডিজাইন সম্পর্কিত এবং ভিডিও এডিটিং সম্পর্কিত যত সফটওয়্যার রয়েছে সে সকল সফটওয়্যার ব্যবহার করলে কম্পিউটারের গতি কমে যায়। আর তখন যদি আপনার ব্যবহার করেন তাহলে আপনার কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে। SSD Card এর পূর্ণরূপ হচ্ছে- Solid State Drive Card.

কম্পিউটারের নোটিফিকেশন বন্ধ করা:

কম্পিউটারের অ্যাপস ইনস্টল করলে কম্পিউটারে নোটিফিকেশন অনেক বেশি পাওয়া যায়। আর এই নোটিফিকেশন গুলো হচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানীর  অ্যাড। আর এই অ্যাডগুলো কিছুক্ষণ পরপর চলে আসে তাই কম্পিউটারের ক্ষতি অনেকটা কমিয়ে দেয়।

আপনারা যদি কম্পিউটারের এই নোটিফিকেশনগুলো বন্ধ করেন তাহলে আপনার কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি পাবে। আর এই এড গুলো বন্ধ করার জন্য আপনার যা করতে হবে তা হচ্ছে-  প্রথমে আপনাকে কম্পিউটারের Setting এ প্রবেশ করতে হবে। এরপর Search অপশনে গিয়ে Choose Which Apps Show Notification টাইপ করে সার্চ করতে হবে।

এখন আপনার সামনে কিছু অপশন আসবে সেখান থেকে আপনাকে দেখে নিতে হবে কোন কোন অ্যাপস গুলো নোটিফিকেশন পাঠিয়ে থাকে। যে এপসগুলো নোটিফিকেশন পাঠিয়ে থেকে সে অ্যাপস গুলোর পাশে টগল বাটন দেখতে পাবেন। সে বাটনগুলো ক্লিক করলে আপনারা নোটিফিকেশন অফ করতে পারবেন। এতে করে আপনার কম্পিউটার এর নোটিফিকেশন আসবে না আর আপনার কম্পিউটারের গতিও নষ্ট করবে না।

স্টার্ট অফ প্রসেস:

কম্পিউটার স্টার্ট করার পর অনেক প্রোগ্রাম চালু হয়ে যায়। আর এই সকল প্রোগ্রাম অনেক সময় কম্পিউটারের গতি কমিয়ে দেয়। তাই এ সকল প্রোগ্রামগুলো ট্যাক্স ম্যানেজার এ গিয়ে বন্ধ করতে হয়। আপনারা কীবোর্ড শর্টকাট এর মধ্যে প্রোগ্রাম চালু করতে পারেন। আর কীবোর্ড শর্টকাট কী হচ্ছে- Clt+Shift+Esc.

এরপর Startup Column অপশনে ক্লিক করতে হবে। সেখান থেকে আপনারা অনেকগুলো প্রোগ্রাম দেখতে পাবেন। আপনি যে প্রোগ্রামটি বন্ধ করতে চান সে প্রোগ্রামটির উপরে মাউসের রাইট বাটন করলে আপনার প্রোগ্রাম করতে পারবেন। এতে করে ওই প্রোগ্রামসমূহ আপনার পিসি চালু করার পর আর চালু হবে না এবং আপনার পিসির গতি ঠিক থাকবে। 

উপসংহার: আশা করি আপনারা আমাদের এই আর্টিকেল থেকে কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায় জানতে পেরেছেন। এ সকল পদ্ধতি সঠিকভাবে যদি আপনারা পালন করেন তাহলে আপনাদের কম্পিউটার সজল এবং গতিসম্পন্ন থাকবে।

এছাড়াও যদি আপনারা কম্পিউটার এ ধরনের কাজ গুলো নিয়মিত না করে থাকেন তাহলে আপনাদের কম্পিউটার নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে এবং প্রয়োজনীয় ফাইলগুলো ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এছাড়াও যদি কম্পিউটার সম্পর্কিত (কম্পিউটারের গতি বৃদ্ধি করার উপায়) তথ্য আপনারা জানতে চান তাহলে আমাদের নিচের কমেন্ট সেকশনে ও জানাতে পারেন। ধন্যবাদ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex