vlxxviet mms desi xnxx

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য | 15 August National Mourning Day

0

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য প্রত্যেক বাঙালির কাছে একটি স্মরণীয় বক্তব্য। প্রতিবছর ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন ব্যবসাহিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান পালন করা হয় এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে বিভিন্ন পর্যায়ে বক্তব্য দেয়া হয়। তার জন্য আপনারা যারা ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বক্তব্য দিতে চাইছেন তারা আমাদের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়লে আপনারা এই দিবস সম্পর্কে কিছু বক্তব্য নিয়ে যাবেন এবং প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য পেয়ে যাবেন।

বাংলাদেশের ইতিহাসের অন্যতম একটি দিন ১৫ আগস্ট। আর এইডেন কে কেন্দ্র করে যে সকল অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেই অনুষ্ঠানগুলোতে আপনারা যাতে বক্তব্য দিতে পারেন তার জন্য আমরা আপনাদের জন্য নমুনাস্বরুপ কিছু জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বক্তব্য নিয়ে এসেছি। তাহলে চলুন আমরা আর দেরি না করে এখনি আমরা ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য গুলো সম্পর্কে জেনে নিই।

আরো দেখুনঃ বঙ্গবন্ধুর জন্ম ও মৃত্যু তারিখ.

জাতীয় শোক দিবস

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য জানার পূর্বে আমাদের অবশ্যই জানা প্রয়োজন জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয় কেন। জাতীয় শোক দিবস পালন করার মূল কারণ হচ্ছে এই দিনে বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়েছিল এবং তাদের এই নির্মম হত্যাযজ্ঞ সকলের মনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে দেয়। তাই এই দিনটিকে স্মরণীয় করে তোলার জন্য এবং দেশব্যাপী যাতে করে শেখ মুজিবুর রহমান মৃত্যু দিন শ্রদ্ধার সাথে পালন করতে পারে তাই এ দিবসকে জাতীয় শোক দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। 

তাই এ দিবসকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ ব্যবসায়ীক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়, এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। সেইসাথে তরুণ প্রজন্ম যাতে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে পারে এবং বাংলাদেশের প্রতি তার অবদান কতোটুকু সে সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে পারে তার জন্য বিভিন্ন ধরনের আয়োজন করা হয়। 

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য

আপনারা যারা  জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কোন অনুষ্ঠানে বক্তব্য পেশ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের উপায় খুঁজে বেড়ান তাদের জন্য আমরা কিছু ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস সম্পর্কিত বক্তব্যের নমুনা নিয়ে হাজির হয়েছি। আপনারা আমাদের এই সকল বক্তব্যগুলো হতে নমুনা সংগ্রহ করে আপনাদের মতো করে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানগুলোতে নিজেদের মূল্যবান বক্তব্য পেশ করতে পারেন এবং প্রয়োজনীয় সকল বক্তব্য গুলো সংগ্রহ করে রাখতে পারেন।

নমুনা- ১

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু

আমি আমার ভাষা প্রকাশ করার পূর্বে আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি যে আপনারা যারা এ অনুষ্ঠানের উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন এবং এই অনুষ্ঠানটি সফলতার সাথে সম্পন্ন করার জন্য যেসকল সুযোগ করে দিয়েছেন।

আমরা সকলেই জানি যে আজ ১৫ আগস্ট। এই দিনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে এবং সেইসাথে তার পুরো পরিবারের সদস্যদেরকে হত্যা করেছে। যিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের জন্য তার জীবনকে বাঁচিয়ে রেখেছেন তিনি এই সপরিবারে ১৫ আগস্ট নির্মমভাবে হত্যার শিকার হন। আমরা ইতিহাসের পাতা ঘুরে দেখলে এই জঘন্যতম অপরাধ এবং হত্যাযজ্ঞের ঘটনা জানতে পারব। বাংলাদেশের ইতিহাসে এই হত্যাযজ্ঞ একটি জঘন্যতম অপরাধ হিসেবে সাক্ষী রয়ে আছে।

তাই এই দিনটিকে জাতীয় শোক দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে এবং এই দিনে বাঙালি জাতি তাদের প্রাণ প্রিয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতি আন্তরিক শ্রদ্ধা অভিভূত হয়ে এবং গভীরভাবে শোকাহত অশ্রু চোখের শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে প্রত্যেক নাগরিকের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী পড়া উচিত এবং সকল নেতাদেরকে তার নেতৃত্ব ঘটনা জেনে সঠিক নেতৃত্ব দেয়া উচিত। যেহেতু ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয় সেহেতু এই দিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী এবং তার পরিবারের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়। তাই সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং সেইসাথে আমি আমার বক্তব্য এখানেই শেষ করছি।

বাংলাদেশ চিরজীবী হোক। আল্লাহ হাফেজ। 

নমুনা- ২

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু

আজকের এই অনুষ্ঠান আয়োজন করার জন্য সকলের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছি এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

সুধিবৃন্দ,

আজ সেই দিন যেদিন বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা এবং সেইসাথে তার পরিবারের সকল সদস্যদেরকে নির্মমভাবে হত্যা করেছেন। বাঙালি জাতির কাছে এই দিনটি জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পরিচিত কারণ এই দিনে বাংলার ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্যতম ঘটনা ঘটেছিল।

আপনারা সকলেই জানেন যে শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ বাঙালির নেতা ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জন হয় এবং সেইসাথে বাংলাদেশের বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সমাধান করতে সক্ষম হয়েছেন। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশকে উপস্থাপন করার জন্য তিনি তাঁর জীবনকে বাঁচিয়ে রেখেছেন।

বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণে বাঙালিদেরকে যেভাবে বাংলাদেশ স্বাধীন করার জন্য অনুপ্রাণিত করেছিলেন এবং অবশেষে স্বাধীনতা অর্জন করতে পেরেছেন কিন্তু এই বীরের সঠিক সম্মান না দিয়ে উল্টো তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে।

বাংলার ইতিহাসের এই ঘটনার প্রতি তীব্র নিন্দা জানিয়ে আমরা আমাদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং সেইসাথে আমরা যারা দেশব্যাপী তার মৃত্যুর জন্য শোক প্রকাশ করছি। তার স্বপ্ন কে সামনে রেখে আমাদের উচিত বাংলাদেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং বাংলাদেশকে সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলা।

আরো দেখুনঃ

শোক দিবস কবিতা

জাতীয় শোক দিবসের আমরা পূর্বে জেনেছি যে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এই দিবস সম্পর্কিত বিভিন্ন অনুষ্ঠান। আর এ অনুষ্ঠান পালন করার মধ্যে অন্যতম সাংস্কৃতিক অঙ্গনের একটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে কবিতা পাঠ করা। যে সকল শিক্ষার্থীরা জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কবিতা আবৃতি করতে চাইছেন তাদের জন্য আমরা এমন কিছু কবিতা নিয়ে এসেছি যেগুলো আপনাদের প্রাণ ভরিয়ে দেবে। 

আমাদের বাংলাদেশের সকল ছোট-বড় নাগরিকের অন্যতম জনপ্রিয় এবং প্রাণপ্রিয় নেতা হচ্ছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জন করার জন্য তার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময় দিয়েছেন এবং সেইসাথে তিনি তার জীবন বাজি রেখে দেশকে স্বাধীন করার লক্ষ্যে এগিয়ে গিয়েছেন। তাই শোক দিবস উপলক্ষে তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি কবিতা আবৃত্তি করার মাধ্যমে তার কৃতকর্ম এবং তার নেতৃত্ব কে তুলে ধরে কিছু শোক দিবস কবিতা নিম্নে দেয়া হল-

15 August National Mourning Day F&Q

১. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কত সালে হত্যা করা হয়?

উত্তরঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ১৯৭৫ সালে হত্যা করা হয়।

২. বাংলাদেশের জাতীয় শোক দিবস কবে?

উত্তরঃ বাংলাদেশের জাতীয় শোক দিবস হচ্ছে ১৫ আগস্ট।

৩. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে যখন হত্যা করা হয় তখন তার পরিবারের সদস্য কোথায় ছিলেন?

উত্তরঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে যখন হত্যা করা হয় তখন তার পরিবার তার নিজ নিবাসে ছিলেন।

৪. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে কোথায় হত্যা করা হয়েছিল?

উত্তরঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তার নিজ বাসভবনে (ধানমন্ডি ৩২ নাম্বার) হত্যা করা হয়েছিল।

৫.কেন ১৫ আগস্ট বাংলাদেশের জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হয়?

উত্তরঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের তার কথা ভেবে তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন জানানোর জন্য ১৫ আগস্ট বাংলাদেশের জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

উপসংহারঃ আপনারা যারা ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য খুঁজেছেন আশা করছি আপনারা তারা আমাদের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানতে পেরেছেন কারন আমরা আপনাদেরকে এমনভাবে কিছু ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য দেখিয়েছি যাতে করে আপনারা খুব সহজেই এ সকল বক্তব্য নমুনা সংগ্রহ করতে পারেন এবং আপনার প্রয়োজন অনুসারে তা প্রয়োগ করতে পারেন।

এছাড়াও আপনারা যদি ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এর বক্তব্য সম্পর্কিত অন্যান্য তথ্য জানতে চান অথবা কোন প্রশ্ন জানার থাকে তাহলে আপনারা আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে তা জানাতে পারেন। আমাদের ওয়েবসাইট হতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে জাতীয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর এর প্রতি গভীরভাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করছি। ধন্যবাদ। 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex