vlxxviet mms desi xnxx

মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম

0

মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম

ভূমিকা

যখন আমরা শুনতে পাই শিশু জন্ম হওয়ার কথা তখনই আমরা শিশুর জন্য বিভিন্ন নাম খুঁজতে থাকি। য়ার সেই নাম রাখা নিয়ে আমাদের কত রকম চিন্তা-ভাবনা  মনের মধ্য ঘুরতে থাকে। কোন নামটি রাখলে ভালো লাগবে? কোন নামটি অর্থ সুন্দর হবে? কোন নাম সবার থেকে আলাদা হবে? আরও কত কি ভেবে থাকি। একটি শিশু জন্মের পর তার সুন্দর নাম রাখা প্রত্যেক বাবা-মায়ের একান্ত কর্তব্য। মুসলিম বিশ্বে মুসলমানগন ইসলামিক সুন্দর সুন্দর অর্থসহ নাম রেখে থাকে। তার মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। 

ইসলামী সাংস্কৃতি, ঐতিহ্য সাথে মিল রেখে শিশুর নাম নির্বাচন করা হয়। কিছু কিছু পিতা-মাতা তার নবজাতক সন্তানের জন্য নাম নির্বাচন করতে আলেম-ওলামাদের শরণাপন্ন হয়। তবে শিশুর নাম রাখা নিয়ে আমাদের সমাজে কিছু অজ্ঞতা রয়েছে। বিশেষ করে মেয়ে শিশুদের নাম রাখার ক্ষেত্রে আমরা অনেকটাই অবহেলা করে থাকি। মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখার আগে আমাদের দেখে নিতে হবে শব্দটি কুরআনে কোন অর্থবহ শব্দ কি না। কারণ কোরআনে পৃথিবীর নিকৃষ্টতম কাফেরদের নাম উল্লেখ রয়েছে। তাই আমাদের নাম রাখার ক্ষেত্রে নামের অর্থ জেনে নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মেয়েদের ইসলামিক সুন্দর নাম অর্থসহ সম্পর্কে আপনাদের একটি ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করছি।

ইসলামিক নাম কি?

মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখার ক্ষেত্রে সবার আগে জানতে হবে ইসলামিক নাম কি? ইসলামিক নাম বলতে মুসলমান ধর্মের মুসলিমগণ কুরআনের আলোকে সুন্দর অর্থবহ যেসকল নাম নির্বাচন করে সে সকল নাম কে ইসলামিক নাম বলে। একজন মুসলমানের যদি ইসলামিক নাম রাখা হয় তাহলে ইহকাল এবং পরকালে উভয়ে সে নামের জন্য পুরস্কৃত হবে।

তাই আমাদের উচিত সুন্দর অর্থবহ ইসলামিক নাম রাখা এবং ইসলামিক নাম অনুসারে মুসলিম মেয়ে শিশুদের নাম ধরে ডাকা। 

ইসলামিক নাম কেন উত্তম?

ইসলামিক নাম ধরে ডাকা উত্তম। কারণ একজন ব্যক্তি অন্য জন ব্যক্তিকে যদি নাম ধরে ডাকে তাহলে অপর ব্যক্তি যেমন সওয়াব পাবে ঠিক তেমনি যে ব্যক্তি তার সুন্দর নাম ধরে ডাকলে সে ব্যক্তি ও সব পাবে। সুন্দর অর্থবহ নাম রাখলে এবং সুন্দর অর্থবহ নাম ধরে ডাকলে আল্লাহ তায়ালা খুশি হয়। শেষ বিচারের দিন যখন আল্লাহতালা। মুসলিমদের ডাকবেন তখন তাদের এই সুন্দর অর্থবহ নাম গুলো দিয়েই ডাকবেন। এবং এই সুন্দর নাম রাখার জন্য তাকে। পুরস্কৃত করা হবে তাই ইসলামিক নাম রাখা উত্তম।

মেয়েদের ইসলামিক নাম রাখার কারণ

ইসলাম অর্থ শান্তি। আমরা সকলেই জানি একজন মুসলিম অন্য আরেকজন মুসলিম ভাই ভাই। ইসলাম একটি শান্তিপ্রিয় ধর্ম। যেখানে প্রতিটি জিনিসই শান্তিপূর্ণ এবং অতি মূল্যবান। ইসলামের সব কিছুর মধ্যে একটি শিশুর ইসলামিক নাম রাখার অন্যতম। ইসলামিক সুন্দর অর্থবহ নাম রাখার অনেক ফজিলত রয়েছে। 

তাই যখন একটি শিশুর জন্মাবে তখন তার জন্য ইসলামিক অর্থবহ নাম খুঁজে বের করতে হবে। এবং সেই নাম সম্পর্কে সম্পূর্ণ জ্ঞান রেখে সেই নামটি নির্বাচন করতে হবে। ইসলামিক নাম রাখলে মহান আল্লাহ তায়ালা খুশি হন এবং শেষ বিচারের দিন এই নামের জন্য মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে পুরস্কৃত করবেন। তাই একজন মুসলিমের ইসলামিক নাম রাখা উচিত।

ইসলামিক নাম রাখার ফযিলত 

একটি মানুষের পরিচয় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। ইসলাম ধর্মের নাম রাখার গুরুত্ব অপরিসীম। ইসলামিক নাম রাখার ব্যাপারে নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম, উম্মতকে স্পষ্ট দিকনির্দেশনা প্রদান করে দিয়েছে। “অর্থবহ ভালো সুন্দর নাম রাখার পাশাপাশি মন্দ নাম রাখা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন।”

একজন ব্যক্তির নাম শুধু ওই ব্যক্তির পরিচয় বহন করে না। ব্যক্তির পরিচয় বহন করার পাশাপাশি  ব্যক্তির চিন্তা চেতনা এবং রুচিশীলতার পরিচয় দেয়। একটি সুন্দর নাম রাখার ফলে মন মানসিকতার ওপর ভাল প্রভাব ফেলে এবং যে ব্যক্তির সুন্দর নাম রাখা হয় ঐ ব্যক্তির ওপর একটি সুন্দর প্রভাব, শান্তি বিস্তার করে। 

উদাহরণস্বরূপ, একজন ব্যক্তির নাম যদি রাখা হয় লাল্লু। এরপর উনি উচ্চশিক্ষিত লাভ করার পর তাকে কেউ লাল্লু বলে ডাকলে সে এ ব্যাপারটি নিজের ব্যক্তিত্বের সাথে মেনে নিতে পারবেন না। এতে তার ব্যক্তিত্বের মানহানি হবে। তাই ব্যক্তিত্ব এবং পরিচয় কে তুলে ধরার জন্য একটি সুন্দর নাম অবশ্যই প্রয়োজন। 

প্রতিটা বাবা-মায়ের উচিত তার সন্তানের সুন্দর অর্থবহ নাম রাখা। আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু ও আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত হয়েছে যে,  রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,

শিশুর নাম রাখার আগে অর্থ জানা জরুরী 

শিশুদের নাম রাখার পূর্বে অবশ্যই এর অর্থ জানা জরুরী। কারণ যে নামের অর্থ সুন্দর সেই নামটি সুন্দর হয়। এবং সেই ব্যক্তির উপর মহান আল্লাহতালা শান্তি বর্ষিত হয়। ভালো সুন্দর অর্থবহ নাম এর প্রভাব ব্যক্তির উপরে পড়ে। এবং অর্থবহ সুন্দর নাম রাখার ফলে মানসিক প্রশান্তি আসে এর পাশাপাশি নিজের ব্যক্তিত্ব বজায় থাকে। ফলে মানুষ নিজেকে উত্তম করে তুলতে পারে। তাই আমাদের শিশুদের নাম রাখার পূর্বে অবশ্যই অর্থ জেনে নেওয়া উচিত এবং সুন্দর অর্থবহ নাম রাখা উচিত

মেয়েদের ইসলামিক নাম 

এখন আর মেয়ে শিশুর নাম নিয়ে ভাবতে হবে না। আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম মুসলিম মেয়েদের নামের তালিকা। এখানে পাবনে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ। এছাড়াও যারা ডাক নাম হিসেবে দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম এর সন্ধান করেন তা এখানে পেয়ে যাবেন। অনেক মুসল্লি আরবি নাম মেয়েদের অর্থসহ খুঁজে থাকেন সেটিও আমাদের কাছে পাবেন। চলুন তাহলে জেনে নেই মেয়েদের ইসলামিক নামের তালিকা সম্পর্কে।

আ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

আতিকা‌ = Atika ‌= أتيكا = সুন্দরি।

আইদা‌ ‌ = Aaida = عايدة = বাড়ি‌ ‌ফিরে‌ ‌আসার‌ ‌পুরস্কার‌ ‌

আইদাহ‌ = Aidah ‌= عايدة = সাক্ষাৎকারিনী‌ ‌

আকলিমা‌ = ‌Aklima =‌ ‌أكليمة = দেশ।‌ ‌

আকিলা‌ = ‌Akila =‌ ‌عقيلة = বুদ্ধিমতি।‌ ‌

আক্তার‌ =  Akter ‌=‌ أكتر = ‌ভাগ্যবান‌ ‌

আছীর‌ ‌= Achir = اشير = পছন্দনীয়।‌ ‌

আজরা‌ ‌তাহিরা‌ ‌ = Ajra Tahira = أزرا: ريتا هيرا = কুমারী‌ ‌সতী‌ ‌

আজরা‌ ‌রায়হানা‌ ‌=‌ Ajra Rayhana = عزرا: ريهانا = কুমারী‌ ‌সুগন্ধী‌ ‌ফুল‌ ‌

আজরা‌ ‌রাশীদা‌  ‌= Ajra Rashida = عزرا: رشيدة = কুমারী‌ ‌বিদুষী‌ ‌

আজরা‌ ‌রুমালী‌ ‌= Ajra Rumali ‌= أزرا: أورومالي: ‌= কুমারী‌ ‌কবুতর‌ ‌

আজরা‌ ‌শাকিলা = Ajra Shakila = عزرا: العشاء شكيلة = কুমারী‌ ‌সুরূপা‌ ‌

আজরা‌ ‌সাজিদা‌ ‌= Ajra Sajida = عزرا: ساجدة = কুমারী‌ ‌ধার্মিক‌ ‌

সবগুলো দেখুন… আ দিয়ে মেয়েদের নাম 

ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

ইলহাম‌ ‌= Ilham = الإلهام ‌= তার‌ ‌চারপাশে‌ ‌সবার‌ ‌জন্য‌ ‌অনুপ্রেরণা‌ ‌একটি‌ ‌মেয়ে‌ ‌

ইসমাত‌ ‌আফিয়া‌ ‌=‌ ‌Ismat Afiya = عصمت: عافية = পূর্ণবতী।‌ ‌

ইসরাত‌  ‌=‌ ‌Israt = إسرات= সাহায্য।‌ ‌

ইসমত = Ismat = عصمت = প্রতিরোধ, সাধুতা, সতী

ইশরাত = Ishrat =  عشرات= অন্তরঙ্গতা, বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক

ইসতিনামাহ = Istinamah = الاستنامة = আরাম করা

ইফফত = Iffat = عفت = সাধুতা, নির্মল

সবগুলো দেখুন… ই দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

ফ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

ফাদিলা = Fadila = فضيلة = উদারতার গুণাবলীর সঙ্গে জন্ম হয়েছে যার।

ফাবিহা বুশরা  = Fabiha Bushra = قبيحة بشرى = অত্যন্ত ভাল শুভ নিদর্শন।

ফায়জা = Fayja = فايزة = একটি মহিলা যিনি সবসময় বিজয় ফিরিয়ে এনেছে।

ফায়রোজ = Fayroj = فيروز = ফিরোজা রঙের সুন্দর সেড দ্বারা অনুপ্রাণিত।

সবগুলো দেখুন… ফ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

ল দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

লামিয়া = Lamia = لمياء = ভাগ্যবান /উজ্জল।

লাইজু  = Laizu = زنبق  = বিনয়ী।

লাইলি = Laili = زنبق = রাত্রি।

লুবনা = Lubna = لبنى = বৃক্ষ।

লুবাবা = Lubaba = لوبابا = খাঁটি।

লোচনা = Lochana = لوكانا = চোখ।

সবগুলো দেখুন… ল দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

স দিয়ে মেয়েদের নাম

সানজিদা‌  ‌=‌ Sanjida = سنجدة =  ‌বিবেচক‌ ‌

সাবিহা‌  ‌=‌ ‌Sabiha = صبيحة = রূপসী।‌ ‌

সামিয়া‌  ‌=‌ ‌Samiya = سامية =রোজাদার‌ ‌

সায়মা‌  ‌=‌ ‌Sayma = صايمة = রোজাদার।‌ ‌

সায়িমা‌  ‌=‌ Sayima =صايمة  = ‌রোজাদার।‌ ‌

সারাহ‌ ‌= Sarah = سارة =এখনও‌ ‌একটি‌ ‌রাজকুমারী‌ ‌হিসাবে,‌ ‌অনেকের‌ ‌দ্বারা‌ ‌ব্যাপকভাবে‌ ‌ব্যবহৃত‌ ‌হয়‌ .

সবগুলো দেখুন… স দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

ম দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

মাহমুদা‌ ‌= Mahmuda = محمود = প্রশংসিতা।‌ ‌

মাহাসানাত‌  ‌=‌ ‌Mahasanat = محاسناتة = সতী-সাধবী।‌ ‌

মাহিয়া‌  ‌=‌ ‌Mahiya = المحلية:  = নিবারণকারীনি‌ ‌

মাহিরা‌ ‌= Mahira = المهيرة: = একটি‌ ‌মেয়ে‌ ‌যে‌ ‌কানায়‌ ‌কানায়‌ ‌প্রাণবন্ত‌ ‌

মাহেরা‌  ‌=‌ ‌Mahera = ماهرة: = নিপুনা।‌ 

মিনা‌  ‌=‌ ‌Mina = مينا:= স্বর্গ‌ ‌

মুজিবা‌  ‌=‌ ‌Mujiba = موجيباي= গ্রহণ‌ ‌কারিনী।‌ ‌

সবগুলো দেখুন… ম দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

র দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

রামলা‌  ‌=‌ ‌Ramla = الرملة: = বালিময়‌ ‌ভূমি‌ ‌

রামিসা‌  ‌= Ramisa = راميسة: = নিরাপদ।‌ ‌

রায়হানা‌  ‌= Rayhana = ريحانة: = সুগন্ধি‌ ‌ফুল।‌ ‌

রায়া‌ ‌= Raya = راية: = জীবন‌ ‌ভরের‌ ‌জন্য‌ ‌একটি‌ ‌বন্ধু‌ ‌

রাশীদা‌  ‌=‌ ‌Rashida = رشيدة: = বিদুষী।‌ ‌

রিমা‌  ‌=‌ ‌Rima = ريما: = সাদা‌ ‌হরিণ।‌ ‌

সবগুলো দেখুন… র দিয়ে ইসলামিক নাম

জ দিয়ে মেয়েদের নাম

জামিলা‌ ‌= Jamila = جميلة = সুন্দরী।‌ ‌

জায়রা‌ ‌= Jayra = زيارة = একটি‌ ‌গোলাপের‌ ‌চমৎকার‌ ‌প্রকৃতি‌ ‌

জারা‌ ‌= Jara = زارا = একটি‌ ‌ফুলের‌ ‌মতো‌ ‌প্রকৃতির‌ ‌

জালসান‌ ‌= Jalsan = جلسان = বাগান।‌ ‌

জালিলা‌ ‌= Jalila = جليلة = একটি‌ ‌মেয়ে‌ ‌যে‌ ‌তার‌ ‌জীবনে‌ ‌অসাধারণ‌ ‌কাজ‌ ‌প্রকাশ‌ ‌করে‌ ‌

জাহান‌ ‌= Jahan = جهان = পৃথিবী।‌ ‌

সবগুলো দেখুন… জ দিয়ে ইসলামিক নাম

ত দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

তানমীয়া  ‌= Tanmia = تنميرا = ক্রোধ‌ ‌প্রকাশ‌ ‌করা।‌ ‌

তানিয়া‌  ‌=‌ ‌Tania = تانيا = রাজকণ্যা।‌ ‌

তাবা‌ ‌= Taba = الطبيعي  = আরেকটি‌ ‌বিরল‌ ‌নাম‌ ‌যা‌ ‌একটি‌ ‌মেয়ের‌ ‌মিষ্টত্বের‌ ‌নির্দেশক‌ ‌

তাবাসসুম‌  ‌=‌ ‌Tabassum = تباسم ‌= মুসকি‌ ‌হাসি।‌ ‌

তাবিয়া‌ = Tabiya = الطابية = অনুগত।‌ ‌

তামান্না‌ =‌ ‌Tamanna = تمنى = ইচ্ছা।‌ ‌

তাযকিয়া‌  ‌=‌ ‌Tazkiya = تايقية = পবিত্রতা।‌ ‌

সবগুলো দেখুন… ত দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

হ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

হেনা = Hena =  الحناء = নম্র, একটি ফুল

হিমা = Hima = هيما = বরফ, ঠাণ্ডা, শীতল, চাঁদ

হান্বী = Hani = حنبي = মনের সৌন্দর্য

হৃদি = Hridi = القلب = মন, হৃদয়

হৃদয়া = Hridoya = قلب = যার খুব পবিত্র ও দয়াশীল মন আছে

হেমাঙ্গী = Hemanggi = هيمانجي = সোনার মতো বা সোনালী শরীর যার

হিতাশা = Hitasha = يأس = যে সবার ভালো চায়, মঙ্গলকামনা

সবগুলো দেখুন… হ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex