vlxxviet mms desi xnxx

রাজনীতি কাকে বলে?

0

রাজনীতি কাকে বলে? | রাজনীতি কিভাবে করতে হয়?

একটি দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার পেছন থেকে নেতৃত্ব দেয় রাজনীতি। রাজনীতি কাকে বলে জানতে হলে সাথে থাকুন।আমাদের দেশ একটি স্বাধীন দেশ। আমাদের দেশের রয়েছে হাজার বছরের রাজনীতির ইতিহাস। কারণ এদেশ ছিল না স্বাধীন। হানাদার বাহিনীর অত্যাচারে স্বীকার হয়ে নির্মম, অত্যাচারীত এবং পরাধীনতার শিকলে এদেশ ছিল এক সময়ে অন্যের অধীনে। ছিল না কোন অধিকার, ছিল না কোন স্বাধীনতা। পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করতে রাজনীতিই সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করেছেরাজনীতি কাকে বলে জানতে হলে সাথেই থাকুন।

রাজনীতি কি? | What is politics?

একটি দেশকে সঠিক দিশাতে নিয়ে চলতে হলে, রাজনীতির ভূমিকা রয়েছে। রাজনীতি আমাদের দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি একটি দেশকে সঠিকভাবে পরিচালনা করার ক্ষেত্রে বেশ সামনে থেকে নেতৃত্ব। রাজনীতির মাধ্যমে দেশ এবং দশের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে কর্মপরিকল্পনা করা হয় যা একটি দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে বেশ সাহায্য করে। রাজনীতি কখনো প্রত্যক্ষ হয়ে থাকে আবার কখনো পরোক্ষ। তবে সঠিক এবং যুগান্তকারী রাজনীতির উপর একটি দেশের যে ভবিষ্যৎ নির্ভর করে তা বলার আর অপেক্ষা রাখে না।

রাজনীতি একটি বহুমাত্রিক শব্দ। রাষ্ট্রবিজ্ঞান থেকে রাজনৈতিক শব্দের সুত্রপাত। রাজনীতি হল এমন একটি নীতি যার মাধ্যমে কতিপয় কিছু জনগণ দেশের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সিদ্ধান্ত প্রদান করে থাকে।প্রায় একটি স্বাধীন দেশে প্রায় সকল স্থানে স্কুল, কলেজ, প্রতিষ্ঠান সকল স্থানে চর্চা হয় রাজনীতির। রাজনীতিতে ক্ষমতা এবং যোগ্যতার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয়।একটি দেশকে সঠিক এবং সুন্দরভাবে পরিচালনার ক্ষেত্রে রাজনীতি খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

মূলর জনগণের স্বার্থে, জনগনের কল্যাণের কথা ভেবে, নিয়ম পরিচালনা করার পন্থাকে বলা হয় রাজনীতি। একটি দেশের উন্নয়ন,দেশটির নিয়মনীতি, দেশটির এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা নির্ভর করে দেশটির রাজনীতির উপর। সুস্থ রাজনীতি যেমন একটি দেশকে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে ঠিক তেমনি করে অসুস্থ রাজনীতি একটি দেশকে ধ্বংস করে দেওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে। তাই সকল স্তরে সুস্থ রাজনীতির চর্চা একটি দেশকে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে বেশ ভূমিকা রাখতে পারে।পাশাপাশি দেশ এবং দেশের উন্নয়নের এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রণি ভূমিকা পালন করতে পারে। রাজনীতি কাকে বলে জানতে হলে সাথেই থাকুন।

আরো দেখুনঃ বাংলাদেশের আয়তন কত?

রাজনীতি শব্দের অর্থ কি?

রাজনীতি একটি বাংলা শব্দ। রাজনৈতিক শব্দটির আভিধানিক অর্থ দারায় কোন রাষ্ট্র‍্য কিংবা রাজ্য পরিচালনার নীতি কিংবা নিয়মসমূহ।রাজনীতির ইংরেজি শব্দ হল Politics. এটি গ্রীক শব্দ পলিকোস থেকে আবিভূত হয়েছে। Politics মূলত রাজ্যের শাসনের উপর ভিত্তি করে প্রজাদের কল্যাণের জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাকে বোঝানে হয়।

তবে যে যাই বলুক বর্তমানে আধুনিক রাজনীতি বলতে সমাজ সেবাকে বলা হয়। রাজনৈতিক সংগঠনের মাধ্যমে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সেবা প্রদানের মানসিকতাকে বলা হয় রাজনীতি। রাজনীতি হল জনগনের কল্যানের স্বার্থে জনগনের প্রতি রাষ্ট্র‍্য পরিচালনার সমস্ত আচার পালন করার মানসিকতা। জনগনের কল্যাণের স্বার্থে গৃহীত সিদ্ধান্ত সমূহ রাজনীতি নামে আমাদের সকলের কাছে পরিচিত। রাজনীতি কাকে বলে জানতে হলে সাথে থাকুন।

রাজনীতি কাকে বলে?

একটি দেশকে পরিচালনা জন্য প্রয়োজন একটি সঠিক কর্মপরিকল্পনা। সঠিক কর্মপরিকল্পনার জন্য প্রয়োজন হয় দক্ষ নেতৃত্বের। সঠিক এবং যোগ্য নেতৃত্বের জন্য প্রয়োজন সুস্থ রাজনীতি চর্চার। রাজনীতির মধ্যে ক্ষমতার দ্বন্ধ থাকে,জনগণের মতামতের সুযোগ সুবিধা থাকে, জনগণের মতামতের মূল্য থাকে।

একটি দেশকে পরিচালনা করার জন্য কিছু নিয়ম কানুন প্র‍যোজ্য। সেই সকল নিয়ম-কানুন সঠিক এবং যোগ্য ব্যক্রিদের দ্বারা দেশ পরিচালনার নীতিকে বলা হয় রাজনীতি। মূলত জনগণের কল্যাণে একটি সংঘবদ্ধ সমাজ এবং দেশ পরিচালনা করার জন্য কোন ধরণের সক্ষমতা নেওয়ার মাধ্যমকে বলা হয় রাজনীতি।পারিপার্শ্বিক দিক থেকে প্রয়োজনের খাতিরে রাজনীতি কখনো উত্তাল হয়, কখনো সমুদ্রের স্রোতের মত বহমাণ হয়।রাজনীতির মাধ্যমে একটি দেশের কল্যান হয়। রাজনীতি কাকে বলে জানতে হলে সাথেই থাকুন।

আরো দেখুনঃ

রাজনীতি কিভাবে করতে হয়?

রাজনীতি করতে হলে রাজনীতি জানতে হবে। রাজনীতি সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা রাখতে হবে।কারণ একজন যোগ্য রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হতে হলে সকল পারিপার্শ্বিক বিষয়ে জ্ঞান থাকা উচিত। কারণ দেশকে পরিচালনা করার মত নেতৃত্ব সবার মধ্যে বিদ্যমান থাকে না। তাই আপনি যদি নেতৃত্ব দেবার গুণাবলি অর্জন করতে চান আপনাকে সবার আগে নিজের মধ্যে গুনাবলি আপনাকে অর্জন করতে হবে। কারণ নেতা সবাই হতে পারর না, বরং নেতৃত্ব অর্জন করার মত একটি জিনিস।

নিজের যোগ্যতা, দক্ষতা এবং মেধাতে কাজে লাগিয়ে আপনি পারেন নিজেকে একজন দক্ষ এবং যোগ্য নেতা হিসেবে গড়ে তুলতে।নেতা হিসেবে নিজেকে গঠন করতে হলে আপনাকে সবার আগে কিছু যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক নেতা হবার যোগ্যতাসমূহঃ

  • পাবলিক স্পিকিং:

একজন যোগ্য এবং দক্ষ নেতা হতে হলে  আপনার কথা সবাইকে বুঝাতে হবে। আর এক্ষেত্রে পাবলিক স্পিকিং এর কোন বিকল্প নেই। তাই আপনি নিজেকে নেতৃত্ব দেওয়ার গুণাবলী অর্জন করতে চান তাহলে সবার আগে পাবলিক স্পিকিং আপনাকে দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

  • শেখার কোন বিকল্প নেই:

আপনি নিজের মাঝে নেতৃত্বের গুণাবলীতে সমৃদ্ধশালী করতে হলে আপনাকে অবশ্যই শিখতে হবে। শিখতে হবে নতুন কিছু। সব সময় আপনার চোখ রাখতে হবে বই, নিউজপেপার, জার্নাল, ইন্টারনেটে সকল কিছুতে। কারণ এই সকল মাধ্যমে থেকেই আপনি শিখতে পারবেন। শিখতে পারবেন নতুন কিছু।

  • বুঝতে হবে মানুষকে:

আপনি তখন একজন যোগ্য নেতা হয়ে উঠবেন যখন আপনি আপনার কর্মীদের, সাধারণ জনগণদের বুঝতে এবং জানতে পারবেন। তাই সবার আগে নিজের মধ্যে মানুষকে বুঝতে পাড়ার ক্ষমতা অর্জন করতে হবে। আশেপাশের মানুষকে বুঝুন তবেই আপনি বুঝতে পারবেন সবাইকে।

  • প্রতিপক্ষের সামর্থ্য এবং দুর্বলতা সম্পর্কে ধারণা করা:

আপনি নিজের মাঝে নেতৃত্বের গুণাবলী আনতে হলে আপনাকে আপনার প্রতিপক্ষের সামর্থ এবং দুর্বলতা খুঁজে বের করতে হবে। আপনি যখন তাদের দুর্বলতা বুঝতে পারবেন তখন আপনি নেতা হবার দিকে এগিয়ে যাবেন।

  • নতুন কোন কিছু চেষ্টা করা:

আপনি যখন নেতৃত্ব দেওয়ার দিকে এগিয়ে যাবেন আপনাকে অবশ্যই জনগণের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে চিন্তা করতে হবে। জনগণের সুবিধা এবং অসুবিধাকে বিবেচনা করে আপনাকে নতুন নতুন কিছু করার চেষ্টা করতে হবে। যা কখনো আগে কেউ করে নি। যদি জনগণ তা ভালোভাবে গ্রহণ করে বুঝতে হবে আপনি আপনার প্রক্রিয়ার সফল হয়েছেন এবং একজন দক্ষ নেতা হবার দৌড়ে এগিয়ে গেছেন।

  • ভিন্ন চোখে যাচাই করা:

আপনি যখন কোন কিছু করবেন প্রতিপক্ষের অবস্থানে নিজেকে বসিয়ে তা যাচাই করে নিবেন। আপনি যখন নিজেকে তাদের অবস্থানে যাচাই করবেন আপনার দোষ ত্রুটি আপনি ভালোভাবে যাচাই করতে পারবেন। তাই আপনাকে অবশ্যই কোন কিছু ভিন্ন চোখে দেখার মানুসিকতা অর্জন করতে হবে।

  • জনগণের কল্যাণে কাজ করা:

আপনি যখন কোন কাজ করতে যাবেন তখন নিজের উর্ধে জনগণকে রাখার মানুসিকতা অর্জন করবেন। তবেই আপনি একজন দক্ষ এবং যোগ্য নেতা হয়ে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন।রাজনীতি কাকে বলে জানতে হলে সাথেই থাকুন।

উপসংহার: রাজনীতি একটি বহমান নদীর মতো। সবসময় দেশের কল্যাণ বয়ে আনবে তা কিন্তু ঠিক না। তবে দেশের কল্যানে এবং দেশের স্বরভৌমত্ব অর্জনের লক্ষ্যে রাজনীতি ব্যবহার করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া আপনার, আমার আমাদের সবারই নৈতিক দায়িত্ব। আশা করি আজকের আলোচনার মাধ্যমে রাজনীতি কাকে বলে এই সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আপনার আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। আপনার রাজনৈতিক জ্ঞানই আগামী দিনে দেশকে নেতৃত্ব দিতে ভূমিকা রাখবে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex