vlxxviet mms desi xnxx

কাজ কাকে বলে?

0

কাজ কাকে বলে? | কাজ কত প্রকার ও কি কি?

কাজ বলতে আমরা কোন কিছু করাকে বুঝে থাকি। কিন্তু এই কাজ সেই কাজ নয়। আজ আমরা আপনাদের মাঝে যে কাজ নিয়ে আলোচনা করব সে কাজ হচ্ছে পদার্থ বিজ্ঞানের একটি উপাদান। আমরা সাধারণত পদার্থবিজ্ঞানের কাজকে বল প্রয়োগকে বুঝিয়ে থাকি। কিন্তু সব বল প্রয়োগ কিন্তু কাজ নয়।

কাজ নিয়ে আমাদের শিক্ষার্থীবৃন্দদের মধ্যে অনেক মতবিরোধ দেখা যায় আর তাই আপনাদের কাছে এই কাজ সম্পর্কিত সকল খুঁটিনাটি তথ্য তুলে ধরা যাতে করে আপনারা কাজ সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান লাভ করতে পারেন। চলুন তাহলে শুরু করি আমাদের আজকের বিষয়ে কাজ কাকে বলে?

কাজ কাকে বলে?

দৈনন্দিন জীবনে আমরা কাজ সম্পর্কে অনেক ধারণা পেয়ে থাকি কিন্তু পদার্থবিজ্ঞানে কাজ সম্পর্কে আমরা যে ধারণা লাভ করে তা সম্পূর্ণ একটি ভিন্ন ধারণা। আমরা আপনাদের একটি উদাহরণের মাধ্যমে দৈনন্দিন জীবনের কাজ এবং পদার্থবিজ্ঞানে কাজের একটি পার্থক্য তুলে ধরছি।

একজন ব্যক্তি একটি বস্তু দু’হাতে আঁকড়ে ধরে একই স্থান থেকে অন্য স্থানে যদি রাখে তাহলে সাধারণভাবে আমরা এটিকে কাজ বলবো কিন্তু পদার্থবিজ্ঞানে ক্ষেত্রে এ কাজের কাজের পরিমাণ শূন্য। পদার্থবিজ্ঞানে তখনই  ইতি কাজ হিসাবে গণ্য হবে যখন বল এবং সরণ গুণফলের সমান হবে।

অর্থাৎ কোন বস্তুর ওপর বল প্রয়োগ করার ফলে সেই বস্তুর বলের দিকে যে স্মরণ থাকবে তার গুণফলকে কাজ বলে। পদার্থ বিজ্ঞানের কাজকে W দ্বারা প্রকাশ করা হয়। 

কাজ এর সূত্র

গানিতিকভাবে কাজকে যে সুত্রধারা পরিমাণ করা হয় এসে সূত্রটি নিম্নে দেয়া হল-

কাজ = বল x সরণ
W = F x S
যেখানে, 
F = বল এবং
S = সরণ।

কাজ কত প্রকার ও কি কি?

পদার্থবিজ্ঞানে কাজ কে দুই ভাগে ভাগ করা যায়। যেমনঃ

  • ধনাত্মক কাজ। এবং 
  • ঋণাত্মক কাজ।

ধনাত্মক কাজ:

কোন বস্তুর ওপর বল প্রয়োগ করলে যদি সেই বস্তুর সরণ হয় অথবা বলে দিকে স্বর্ণ-রুপা অংশ হয়ে থাকে তবে ওই বল ধারা কৃতকাজ কে ধনাত্মক কাজ বলে।  আবার এই কাজকে বলের দ্বরা কাজ বলে থাকে।

ঋণাত্মক কাজ:

কোন বস্তুর ওপর যদি বল প্রয়োগ করা হয় এবং সেই বলের বিপরীত সেই বস্তুর সরণ ঘটে বা বিপরীত দিকের অংশ থাকার ফলে যে কাজ সম্পন্ন হয় তাকে ঋণাত্মক কাজ বলে।

কাজের একক

কাজের একক হচ্ছে জুল। জুল হচ্ছে কাজ এবং শক্তির এস আই একক এক নিউটন বল প্রয়োগ করলে, প্রয়োগ বিন্দু হতে বলাভিমুখে 1 মিটার সরলে সম্পাদিত কাজের পরিমাণ 1 জুল বলে।

আরো দেখুনঃ

উপসংহার: আমাদের এই আর্টিকেলটি আশা করছি আপনাদের জন্য উপকারে আসবে। এই আর্টিকেল আমরা কাজ কাকে বলে এবং কাজের সঠিক তথ্য তুলে ধরেছি এবং খুব সংক্ষিপ্ত ভাবে। যাতে করে আপনাদের বুঝতে সুবিধে হয়। এছাড়াও আপনারা যদি পদার্থবিজ্ঞানের অন্যান্য অংশ সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex