vlxxviet mms desi xnxx

যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

0

যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী | Jamuna Express Train Route 2022

Jamuna Express Train Route: আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যে মানুষ গুলো মূলত ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াত করতে অনেক বেশি স্বাচ্ছন্দ বোধ করে। তো এই স্বাচ্ছন্দ্য বোধকারী মানুষ গুলোর মধ্যে যারা ঢাকা থেকে তারাকান্দি কিংবা তারাকান্দি থেকে ঢাকায় ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াত করতে চান। তাদের অবশ্যই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। কেননা যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেন হল জনপ্রিয় একটি আন্তঃনগর ট্রেন। যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই ঢাকা থেকে তারাকান্দি এবং তারাকান্দি থেকে ঢাকায় ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াত করতে পারবেন।

তো যে মানুষ গুলো মূলত যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে জানতে চান। সেই মানুষ গুলো কে উদ্দেশ্য করেই আজকের এই আর্টিকেল টি লেখা হয়েছে। কারণ আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল থেকে আপনি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচি জানার পাশাপাশি। এই আন্তঃনগর ট্রেনের যাবতীয় বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন। যেমন, 

  1. যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময়সূচী
  2. যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা
  3. যমুনা এক্সপ্রেস যোগাযোগ
  4. এবং যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের খাবারের ব্যবস্থা সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন।

আরো দেখুনঃ অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম।

তো আপনি যদি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের এই যাবতীয় বিষয় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জেনে নিতে চান। তাহলে আজকের এই আর্টিকেল টি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে। তাই চেষ্টা করবেন আজকের পুরো আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়ার। তাহলে চলুন আর দেরি না করে, সরাসরি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইতিহাস

আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে অবশ্যই জানতে পারবেন। তবে তার আগে আপনার যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইতিহাস সম্পর্কে একটু ধারণা রাখা উচিত। আর আপনি যদি History Of Jamuna ExpressTrain সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে আমি আপনাকে বলব যে, এটি হলো বাংলাদেশের জনপ্রিয় একটি আন্তঃনগর ট্রেন।

যমুনা এক্সপ্রেস নামক জনপ্রিয় এই আন্তঃনগর ট্রেনের সূচনা হয়েছিল ১৯৮৮ সালের জানুয়ারি মাসের ৩০ তারিখ। মূলত এই ট্রেনের মাধ্যমে কোন ছুটির দিন নেই। অর্থাৎ আপনি এই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে সপ্তাহের সাত দিন ঢাকা রেলওয়ে স্টেশন থেকে তারাকান্দি রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত ২১৩ কিলোমিটার পথ যাতায়াত করতে পারবেন।

যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী 2022

উপরের আলোচনা থেকে আপনি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। তো এবার আপনাকে জেনে নিতে হবে যে, যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে। যেহেতু যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেন মূলত ঢাকা রেলওয়ে স্টেশন থেকে সরাসরি তারাকান্দি রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত যাতায়াত করে। সেহেতু এই ট্রেনের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই ২১৩ কিলোমিটার এর পথ ভ্রমণ করে উপভোগ করতে পারবেন।

মূলত এই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনটি যখন ঢাকা থেকে তারাকান্দির দিকে যায়। তখন এই ট্রেনটি ছাড়ার সময় হলো 16:45 মিনিট। এবং উক্ত ট্রেনটি ঢাকা থেকে তারাকান্দি তে পৌঁছায় 22:55 মিনিটে।

অপরদিকে আপনি যখন এই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে তারাকান্দি থেকে ঢাকায় আসবেন। তখন উক্ত ট্রেনটি ছাড়বে 02:00 টার সময় এবং এই ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছাবে 7:45 মিনিটে।

আপনি যেন খুব সহজভাবে বুঝতে পারেন। সেজন্য আমি নিচের আলোচনায় যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী কে টেবিল আকারে প্রদান করছি। আপনি এই টেবিল থেকে যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা নিয়ে নিতে পারবেন।

স্টেশন ট্রেন ছাড়ার সময় ট্রেন পৌঁছানোর সময়
ঢাকা থেকে তারাকান্দি 16:45 22:55
তারাকান্দি থেকে ঢাকা 02:00 07:45

উপরে আপনি যে টেবিল টি দেখতে পাচ্ছেন। এই টেবিলে মূলত যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচি কে উল্লেখ করা হয়েছে। তো আপনি যদি কখনো ঢাকা থেকে তারাকান্দি ট্রেন যোগাযোগের মাধ্যমে যাতায়াত করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনি এই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াত করার চেষ্টা করবেন।

আরো দেখুনঃ আজকের ট্রেনের সময়সূচী.

যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময়সূচী

আর্টিকেলের শুরু থেকে আপনি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেন সম্পর্কিত অনেক অজানা বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে পেরেছেন। যেমন প্রথমে আপনি জেনেছেন, যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ইতিহাস সম্পর্কে। এর পরবর্তীতে আমি আপনার জন্য যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী উল্লেখ করা হয়েছে।

আশা করি আলোচিত এই আলোচনা থেকে আপনার যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী জানা হয়ে গেছে। তো এই বিষয় গুলো জানার পাশাপাশি আপনাকে আরো একটি বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। সেটি হলো, যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময়সূচী সম্পর্কে। চলুন এবার তাহলে যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময় সুচি সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জেনে নেওয়া যাক।

যখন কোন একটি ট্রেন নির্দিষ্ট কোন স্টেশন থেকে অন্য আরেকটি স্টেশন এর দিকে গমন করে। তখন পথিমধ্যে আরও বিভিন্ন স্টেশনে বিরতি নেওয়ার প্রয়োজন হয়। তো আপনি যদি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে ভ্রমণ করতে চান। সেক্ষেত্রে কিন্তু ঢাকা থেকে তারাকান্দি পৌঁছাতে এই ট্রেনটি কে আরো বেশ কয়েক টি স্টেশনে বিরতি নিতে হয়।

কিন্তু আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন। যারা মূলত এই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময়সূচী সম্পর্কে সঠিক ভাবে জানে না। আর সেই অজানা মানুষ গুলো কে এই বিষয়ে জানার জন্যই। এবার আমি নিজে ছোট্ট একটা টেবিল এর মাধ্যমে যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময়সূচী সম্পর্কে সঠিক তথ্য দেয়ার চেষ্টা করব।

বিরতি স্টেশন ঢাকা থেকে তারাকান্দি তারাকান্দি থেকে ঢাকা
সরিষাবাড়ী 22:15 2:17
জামালপুর 21:20 3:10
ময়মনসিংহ 20:00 4:20
গফরগাঁও 18:57 5:12
শ্রীপুর 16:16 5:48
বিমানবন্দর 17:17 6:50
জয়দেবপুর 17:47 6:20

প্রিয় পাঠক, যে মানুষ গুলো মূলত ঢাকা থেকে তারাকান্দি পর্যন্ত যমুনা এক্সপ্রেস নামক এই জনপ্রিয় আন্তঃনগর ট্রেনের সাহায্য ভ্রমণ করবেন। তাদের অবশ্যই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময় সুচি সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। আর আপনি যেন এই বিষয়টি সম্পর্কে অজানা না থাকেন। সেই কারণেই মূলত আমি উপরে টেবিল আকারে খুব সুন্দর ভাবে যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন ও সময় সুচি কে উল্লেখ করার চেষ্টা করেছি।

যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা

অন্যান্য সব আন্তঃনগর ট্রেনের মত যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের আসন রয়েছে। আপনি চাইলে এই ট্রেনের মাধ্যমে যে কোনো আসনের টিকিট কাটতে পারবেন। তবে আসন ভেদে আপনার যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা ভিন্ন হয়ে থাকবে।

চলুন এবার তাহলে যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জেনে নেওয়া যাক। যাতে করে এই যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেন সম্পর্কে তো আপনার কোন বিষয় অজানা না থাকে।

আপনি যদি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা খুব সহজ ভাবে দেখতে পারেন। সে কারণে মূলত আমি নিজে একটি টেবিল প্রদান করেছি। এবং এই টেবিলে বিভিন্ন প্রকার আসনের নাম সহ উক্ত আসনের টিকিট কাটার জন্য আপনাকে কত টাকা পর্যন্ত দিতে হবে সে সম্পর্কে উল্লেখ করেছি।

আসনের নাম টিকিটের মূল্য
শোভন ১৮৫ টাকা
শোভন চেয়ার ২২০ টাকা
প্রথম সিট ২৯৫ টাকা
প্রথম বার্থ ৪৪০ টাকা
স্নিগ্ধা ৪২০ টাকা
এসি সিট ৫০৬ টাকা
এসি বার্থ ৭৫৪ টাকা

প্রিয় পাঠক, আপনারা যারা যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা সম্পর্কে জানতে চান। তাদের জন্য উপরে একটি টেবিল প্রদান করা হয়েছে। এবং এই টেবিল থেকে আপনি যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা সম্পর্কে জানতে পারবেন।

আরো দেখুনঃ

যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনে খাবারের ব্যবস্থা

যদি আপনি নিয়মিত ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াত করে থাকেন। তাহলে অবশ্যই আপনার একটা কথা জানা থাকবে যে। প্রতিটা ট্রেনের মধ্যে কম বেশি খাবারের ব্যবস্থা থাকে। এবং আপনি যদি খাবার কিনতে চান, তাহলে ট্রেনের মধ্যে থেকেই আপনার প্রয়োজনীয় খাবার গুলো কিনে নিতে পারবেন। এবং আপনি যদি ঢাকা থেকে তারাকান্দি পর্যন্ত যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াত করেন। তাহলে আপনি উক্ত ট্রেনের মধ্যে অনেক মানসম্মত খাবার পাবেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex