vlxxviet mms desi xnxx

শরিয়ত অর্থ কি? শরিয়তের গুরুত্ব

0

আপনি কি একজন প্রকৃত মুমিন হতে চান ? শরিয়ত অর্থ কি? শরীয়তের গুরুত্ব ও পরিধি সম্পর্কে জানতে আগ্রহী?

ইসলাম একটি শান্তির ধর্ম ,ইসলাম ন্যায়ের ধর্ম। আপনাকে ইসলামের একজন প্রকৃত মুমিন হতে হলে, আমাদের সকলকে ইসলামের দেওয়া সকল বিধিবিধানগুলো  মেনে চলতে হবে। ইসলাম আমাদের মানুষের মাঝে মূলত ধর্মের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করা শিক্ষায়। সারা বিশ্বব্যাপী প্রচলিত এই ধর্ম ব্যবস্থার ইসলামের  মূল হয় ইসলামী শরীয়ত। তাই আমাদেএ ইসলামের শরীয়ত সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা রাখা প্রয়োজন। শরিয়ত অর্থ কি? শরীয়তের গুরুত্ব ও পরিধি সম্পর্কে জানতে হলে সাথেই থাকুন।

ইসলামের মূল স্তম্ব রয়েছে।যেগুলোর উপর আমাদের পূর্ণ আস্থা জ্ঞাপন করে তা নিয়মিত পালন করে অতি আবশ্যক। এই নিয়মনীতি সমূহ পালনের শিক্ষা আমাদের দিয়ে থাকে শরিয়ত। তাই আমাদের ইসলামি জীবনব্যবস্থা সমস্ত নিয়মকানুন পালন করতে হয় ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক। আপনি জানেন ইসলামি শরীয়তের কতগুলো নিয়ম কানুন রয়েছে যেগুলো পালনের মাধ্যমে আপনি একজন প্রকৃত মুমিন হতে পারবেন?  তাই ইসলামী শরীয়তের গুরুত্ব কতখানি তা মূলত  ইসলামী জীবনব্যবস্থায় বুঝা যায়। শরিয়ত অর্থ কি? শরিয়তের গুরুত্ব ও পরিধি সম্পর্কে জানতে চাইলে সাথেই থাকুন।

শরীয়ত অর্থ কি?

শরীয়ত কোন ধরণের  সাধারণ শব্দ নয়। এটি মূলত আরবি ভাষা থেকে আগত। তাই এটি আমাদের কাছে আরবি ভাষার শব্দ হিসেবে হিসেবে পরিচিত। তবে এই শব্দটির আভিধানিক গুরুত্ব অনেক।কারণ আমাদের  ইসলামী ধর্মাবলম্বীদের কাছে শরীয়ত শব্দটির গুরুত্ব অনেক।কারণ  শরীয়ত হল একদরণ এর দির্নির্দেশনা কিংবা পথ কিংবা রাস্তা। শরিয়ত অর্থ কি? শরিয়তের গুরুত্ব ও পরিধি জানতে হলে চোখ রাখুন।

শরিয়ত শব্দের অর্থ কি

শরীয়ত মূলত একটি আরবি শব্দ। তাই  ইসলামী জীবনব্যবস্থার আলোকে ইসলামের দেওয়া রীতিনীতি, মেনে সে অনুযায়ী আমল করে এবং সেই অনুযায়ী নিজের জীবন পরিচালনা করার মাধ্যমকে বলা হয় শরীয়ত।

মূলত সহজ ভাষায় বলতে গেলে, মহান আল্লাহ তায়ালা এবং মোহাম্মদ (সা:) এর প্রদত্ত দিকনির্দেশনার আলোকে আমাদের জীবন পরিচালনা করার বিধিবিধানকে বলা হয় শরীয়ত। এছাড়াও আরও জানুন শরিয়ত অর্থ কি? শরিয়তের গুরুত্ব ও পরিধি সম্পর্কে।

শরিয়ত বলতে কি বুঝায়?

প্রত্যেক ধর্মের কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম কানুন আছে। আমাদের ইসলাম ধর্মেও তার কোন ব্যতিক্রম নয় তাই আমাদের ইসলাম ধর্মের বর্তিত নিয়মনীতি শরীয়ত হিসেবে বেশ পরিচিত।

ইসলাম মূলত একটি জীবনব্যবস্থা যার প্রকৃত জীবনব্যবস্থা পালনের রীতিনীতি মূলত শরীয়ত অনুসারে আমাদের পালন করতে হয়।  ইসলামের দেওয়া প্রদত্ত রীতিনীতি অনুসারে আমাদের মহান আল্লাহর দেওয়া সকল বিধি বিধানের উপরে এবং হযরত মোহাম্মদ (সা:) এর অনুসারে আমাদের ধর্মীয় বিধি বিধান ,আচার রীতিনীতি এবং সকল কিছুর পালনের নির্দেশনা আমরা যেখান থেকে পেয়ে থাকি তা হল শরীয়ত।জানতে থাকুন শরিয়ত অর্থ কি? শরিয়তের গুরুত্ব ও পরিধি সম্পর্কে।

ইসলামে শরীয়তের ৪ টি উৎস রয়েছে। তা হল:

  1. কোরআন মাজিদ।
  2. হাদিস শরীফ।
  3. ইজমা।
  4. কিয়াস।

চলুন জেনে নেই শরিয়তের উৎস সম্পর্কে বিস্তারিত।

১.কোরআন মাজিদঃ

পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ ধর্মগ্রন্থ হল কোরআন মাজিদ।একজন মুমিন এর সকল সমস্যার এক সমাধান হল কোরআন মাজিদ।তাই শরীয়তের ক্ষেত্রে এক গুরুত্বপূর্ণ উৎস হল কোরআন মাজিদ।একজন প্রকৃত মুমিন হতে হলে তাকে যে সকল বিষয়সমূহ মেনে চলতে হবে তার সমস্ত দিকনির্দেশনা দেওয়া আছে পবিত্র কোরআন মাজীদে। তাই আমরা কোরআন এবং শরীয়তের মধ্যে বিদ্যমান সকল প্রকার নিয়ম অনুসরণ করে নিজের জীবন গঠন করব। সেই সাথে তা আমল করব।

2.হাদিস শরীফ:

আমাদের প্রিয়নবী হজরত মোহাম্মদ (সা:) এর দেওয়া সকল আদেশ উপদেশ নিয়ে হাদিস শরীফ রচিত। হাদিস শরীফে বিদ্যামান সকল ধরনের আদেশ উপদেশ এবং নিয়মনীতি আমরা পালন করব.পাশাপাশি শরীয়তের আলোকে আমরা আমাদের জীবনব্যবস্থা পরিচালনা করব।

3.ইজমা:

ইসলাম একটি সম্পূর্ণ জীবন ব্যবস্থার নাম। ইসলামের আলোকে জীবন গঠন করার সমস্ত দিক নির্দেশনা কোরআন মাজিদ এবং হাদিসের আলোকে নেওয়া হয়ে থাকে। কিন্তু আমাদের কখনো কখনো এমন কিছু মাসআলাঃ এর দরকার হয় যা আমরা কোরআন মাজিদ কিংবা হাদিস শরীফের আলোকে পাই না। তাদের জন্য মূলত সমস্ত আলেম উলামায়েরা যে সমাধান দিয়ে থাকে সেই সমাধানকে বলা হয় ইজমা।

4.কিয়াস:

আমাদের জীবনব্যবস্থায় আমরা বিভিন্ন ধরণের সমস্যায় পরে থাকি। সেই সমস্যা সমূহ থেকে উত্তরণের জন্য দলিল হিসেবে আমরা প্রথমেই শরণাপন্ন হয়ে থাকে পৃথিবীতে সর্বশ্রেষ্ঠ ধর্মগ্রন্থ কোরআন শরীফের আলোকে। কিন্তু আমরা যদি কখনো সেই সমাধান কোরআন মাজিদ কিংবা হাদিস শরীফের আলোকে পেয়ে না থাকি তখন আমরা তা হাদিস এবং কোরআনের আলোকে তা অনুমান করতে পারি। কোরআন এবং হাদিসের আলোকে কোন বিষয়ের উপর অনুমান করাকে বলা হয় কিয়াস। কিয়াস সম্পূর্ণ স্বীকৃত শুধুমাত্র সেই ক্ষেত্রে যেখানে সেই বিষয়টির ব্যাখ্যা কোরআন এবং হাদিসের আলোকে দেয়া হয় নি। জানতে হলে চোখ রাখুন শরিয়ত অর্থ কি? শরীয়তের গুরুত্ব ও পরিধি সম্পর্কে।

শরীয়তের গুরুত্ব এবং পরিধি

শরীয়ত ইসলাম ধর্মে বিদ্যমান খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। কারণ আমাদের ইসলাম ধর্মের আলোকে আমাদের সকলকে মূলত  শরীয়াত সম্মত ভাবে আমাদের জীবন ব্যবস্থা পরিচালনা করতে হয়ে থাকে। আমাদের মধ্যে কোন মুসলিম ব্যক্তি যদি এই শরীয়ত সম্পন্ন নিয়ম কানুন, প্রদত্ত বিধি বিধান পালনে কোন কারণে  অসমর্থ হয়ে থাকে তখন কখনোই  তাদেরকে প্রকৃত মুমিন বলা চলে না। কারণ প্রকৃত মুমিন হতে হলে আপনাকে অবশ্যই শরিয়ত সম্মতভাবে  জীবন পালন করার কোন ধরণের বিকল্প নেই।

দেখুন: আকাইদ বলতে কি বুঝায়

একজন মুমিন যদি শরীয়ত সম্মত জীবন পরিচালনা করে তাহলে তার জীবনে বরকত ও রহমন আসে। এতে আল্লাহ তা’য়ালা ও নবী করিম (সা:) বেশি খুশি হয়ে থাকে। কিন্তু কোন কারণে যদ কোন মুমিন যদি তা পালনে ব্যর্থ হয় তাহলে তার জীবনে বিপর্যয় আসতে বেশি দেরি নেই।কারণ শরিয়ত পালনে ব্যর্থ হওয়া কিংবা তা অস্বিকার করা শাস্তি ভয়াভহ। কারণ কোন বান্দা যদি শরীয়তকে অস্বীকার তাহলে তা ইসলামকে অস্বিকার করার শামিল হয়ে যায়।আর শরীয়তকে অস্বীকার করাও পাপ হিসেবে গণ্য হয়ে থাকে।

শরিয়ত বলতে কি বুঝায়?

একজন মুমিন হতে হলে ইসলামি জীবনব্যবস্থার একটি পরিপূর্ণ গাইডলাইন পাওয়া যায় শুধুমাত্র শরীয়ত প্রদত্ত জীবনব্যবস্থার মধ্যে। আমাদের ধর্মে কোন ধরণের কাজ করা হালাল এবং কোন কাজ করা ইসলামে হারাম তার সমস্ত ধারণা আপনি পেতে পারেন শরীয়তের মধ্যে। তাই আমাদের উচিত শরীয়তের আলোকে আমরা আমাদের জীবনযাপন সহ আমাদের নিত্যদিনের কাজ সম্পন্ন করব। আমাদের প্রত্যাহিক  জীবনে শরীয়তের আলোয় বেশ আলোকিত করব।

শরীয়ত এর মধ্যে  আমাদের জীবনব্যবস্থা বেশ আমূলভাবে পরিবর্তন নিয়ে আসে।তাই  আমরা অবশ্যই শরীয়তের আলোকে নিজেদের জীবনযাত্রা পরিচালনা করবো,শরীয়তের নিয়ম মেনে আমাদের কাজ সম্পাদন করব, আমাদের জীবিক নির্বাহ করব। কারণ ইসলামের জীবনব্যবস্থার ক্ষেতেএ শরীয়তের পরিধি বেশ ব্যাপক।

উপসংহার: ইসলাম একটি শান্তিপূর্ণ ধর্ম। একটি সহজ জীবনব্যবস্থা আমাদের ইসলাম দিয়ে থাকে। তাই ইসলামের অনুশাসনের আলোকে আমাদের জীবন পরিচালনা করতে হলে আমাদের অবশ্যই ইসলামের বিঁধে দেওয়া সমস্ত নিয়ম নীতি পালন করতে হবে। ইসলামের দেওয়া সমস্ত নিয়মকানুন আমরা পাব শরিয়তে। তাই আমাদের উচিত সবসময় ইসলামী শরীয়তের আলোকে আমাদের জীবন গঠন করা ,ইসলামী শরিয়তের আলোকে নিয়মনীতি পালন করা,ইসলামী শরীয়তের আলোকে নিজের জীবনকে গড়ে তোলা। আশা করি আজকের আলোচনার মাধ্যমে আপনি জানতে হলে চোখ রাখুন শরিয়ত অর্থ কি? শরীয়তের গুরুত্ব ও পরিধি সম্পর্কে

 সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। একজনন প্রকৃত মুমিন এবং আল্লাহর নৈকট্য কামনা করতে হলে শরীয়তের আলোকের আপনার জীবন পরিচালন করুন এবং জীবন গঠন করুন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex