vlxxviet mms desi xnxx

অহংকার নিয়ে উক্তি

0

অহংকার নিয়ে উক্তি (ইসলামিক বাণী ও স্ট্যাটাস)

আমাদের মধ্যে সবার জানা আছে যে অহংকার পতনের মূল। কিন্তু এ কথাটি জানার পরও এমন অনেক মানুষকে আপনি খুঁজে পাবেন যারা মূলত প্রতিনিয়ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অহংকার করে থাকে। যদিও বা অহংকার করা উচিত না কিন্তু তারপরও আমাদের পৃথিবীতে অহংকারী মানুষের সংখ্যাও কম নয়। তবে সেই সব মানুষদের উদ্দেশ্যে আজকের এই আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে। কারণ আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলে আমি সেরা কিছু অহংকার নিয়ে উক্তি শেয়ার করব আপনার সাথে। মূলত আপনার চোখে কোন অহংকারী মানুষ দেখলে আপনি সেই উক্তি গুলো তাদের কাছে বলতে পারবেন।

একটা কথা মাথায় রাখবেন এক ফোঁটা লেবুর রস যেমন এক বালতি দুধ কে নষ্ট করে দিতে পারে। ঠিক তেমনিভাবে স্বল্প পরিমাণ অহংকারী মানুষেরা কিন্তু নিজের অজান্তেই অনেক বড় ক্ষতি করে ফেলে। তাই যতটা সম্ভব আপনি এই অহংকার নামক বস্তুটি থেকে অনেকটাই দূরে থাকার চেষ্টা করবেন। এতে করে আপনারই মঙ্গল তো চলুন এবার তাহলে সেরা কিছু অহংকার নিয়ে উক্তি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

যদি কোন ব্যক্তির জীবনে মারাত্মক সব ভুল করে থাকে, তাহলে ভেবে নিবেন যে সে ব্যক্তিটি এইসব মারাত্মক ভুলের কারণে তার ভেতরে থাকা অহংকার সবচেয়ে বেশি দায়ী। কারণ কোন জীবনের মারাত্মক সব ভুল গুলোর মধ্যে যা থাকে, সেটি হল অহংকার। তাই যথাসম্ভব চেষ্টা করবেন অহংকার থেকে অনেকটাই দূরে থাকার।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

একজন মানুষ যখন কোন কারন ছাড়াই অন্য আরেকটি মানুষকে ঘৃণা করবে, একজন মানুষ যখন কোন কারন ছাড়াই অপর মানুষটিকে প্রচন্ডভাবে তিরস্কার করবে, তাহলে বুঝে নেবেন যে সেই মানুষটির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে অহংকার রয়েছে। এবং জীবনে চলার পথে এই ধরনের অহংকারী মানুষ গুলোর থেকে নিজেকে অনেকটা দূরে রাখবেন।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে চলার পথে আপনি কখনোই নিজের স্বাস্থ্য এবং নিজের অর্জিত টাকা নিয়ে কখনো অংকার করবেন না। কারন একটা কথা সবসময় মাথায় রাখবেন, সেটি হল যে স্বাস্থ্য কখনই দীর্ঘস্থায়ী নয়, এটি যেকোন সময় আপনার দেহ থেকে চলে যেতে পারে। ঠিক একই ভাবে টাকা কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী নয়, এই টাকা যে কোন সময় আপনার থেকে অনেক দূরে চলে যেতে পারে। তাই স্বাস্থ্য এবং টাকা নিয়ে কখনোই অহংকার করা উচিত নয়।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

যদি আপনি দেখেন যে কোনো একজন ব্যক্তির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে অহংকার রয়েছে। তাহলে আপনি ধরে নিবেন যে কোন না কোন সময় উক্ত ব্যক্তি সবচেয়ে বড় বিপর্যয়ের মধ্যে পড়বে। কারণ অহংকার এর মূল লক্ষ্য হলো তাকে বিপর্যয়ের মধ্যে ফেলে দেওয়া।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে চলার পথে অহংকার নামক এই বিশেষ বস্তু থেকে স্বল্প আকারে ধারণ করার চেষ্টা করবেন। কেননা আপনি যদি একজন অহংকারী মানুষ হয়ে থাকেন, তাহলে আপনি সমাজে কখনোই সম্মান পাবেন না। যদি আপনার মধ্যে অহংকার নামক এই গুণটি অধিক পরিমাণে থাকে। তাহলে আপনি মানুষদের কাছে ভালো হতে পারবেন না। তাই জীবনে চলার পথে আপনার উচিত অহংকার নামক এই বস্তুটি কে স্বল্পতার মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখা।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

আপনি কি জানেন অহংকার এবং দারিদ্রতা এই দুটোই পরস্পর পরস্পরের সাথে থাকতে ভালোবাসে। মনে রাখবেন অহংকারী ব্যক্তিদের যে সম্পদের অহংকার করে, সেই সম্পদ কিন্তু কোন না কোন সময় চলে যেতে পারে। এবং তখনই সেই ব্যক্তিটি দারিদ্রতার অন্ধকারে ভেসে যাবে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

একজন শিক্ষিত অহংকারী বন্ধুর তুলনায় একজন অশিক্ষিত মানুষদের মূল্য অনেক বেশি। জীবনে চলার পথে যদি কখনো কারো সাথে বন্ধুত্ব করার প্রয়োজন পড়ে, তাহলে কখনোই এরকম অহংকারী মানুষের সাথে বন্ধুত্ব করবেন না। কারণ অহংকার সব সময়ে নিজেদের বিপর্যয় ডেকে আনে, এবং আপনি যদি তাদের সাথে বন্ধুত্ব করেন তাহলে আপনিও সেই সমান বিপর্যয়ের ভাগি হবেন।

আরো দেখুন: ইসলামিক উক্তি।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

সৃষ্টিকর্তা সর্বদাই সেই সব মানুষ গুলোকে প্রচুর পরিমাণে ঘৃণা করে, যাদের মধ্যে অহংকার রয়েছে। সেই মানুষ গুলোকে প্রচুর পরিমাণে ঘৃণা করে, যে মানুষ গুলোর মধ্যে অনেক লোভ রয়েছে। তাই আপনি যদি সৃষ্টিকর্তার প্রিয় মানুষ হতে চান তাহলে অবশ্যই লোভ এবং অহংকার কে অনেক দূরে ঠেলে দেবেন। এতে করে আপনার ওই মঙ্গল।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

আমাদের জীবনের সবচেয়ে বড় শত্রু কি জানেন! আমাদের জীবনের সবচেয়ে বড় শত্রু নাম হল অহংকার। মূলত এর মত বড় শত্রু আর দ্বিতীয়টি খুঁজে পাবেন না।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

সবচেয়ে মজার বিষয় হলো যে ব্যক্তি যত বেশি অহংকারী, সেই ব্যক্তিটি অহংকার তত বেশি ঘৃণা করে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

মানুষ ধ্বংস হওয়ার তিনটি সত্তা বিশেষ ভূমিকা রাখে। প্রথমত যে মানুষটি অহংকারী, সে মানুষের ধ্বংস অনিবার্য অপরদিকে যে মানুষের মধ্যে লোভ এর পরিমাণ অধিক, সেই মানুষের ধ্বংস অনিবার্য এবং সবশেষে যে মানুষটার মধ্যে হিংসা বিরাজমান, সেই মানুষটিও কখনোই সুখ অর্জন করতে পারবেনা। তাই জীবনে চলার পথে হিংসা, লোভ এবং অহংকার কে দূরে ঠেলে দেবেন।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

যখন মানুষ বিপদে পড়ে তখন সে মানুষ গুলো মন প্রাণ থেকে সৃষ্টিকর্তা কে স্মরণ করতে থাকে। কিন্তু যখন সেই মানুষ গুলোর বিপদ কেটে যায়, তখন কিন্তু সেই মানুষ গুলোর মধ্যে অহংকার সৃষ্টি হয়। এবং সেই অহংকারের দ্বারা উৎফুল্ল হয়ে যায়। কিন্তু সেই মানুষ গুলোর মনে রাখা উচিত যে, বিপদ কিন্তু একবারই আসে না বারবার আসে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

অহংকার হল সত্যি কে উপেক্ষা করা, কারণ যারা অহংকারী তারা কখনোই সত্যকে সম্মান করতে পারেনা। এর পাশাপাশি একজন অহংকারী ব্যক্তি কখনোই আর অন্য একজন ব্যক্তি কে নিজের সমতুল্য বলে মনে করে না। কারণ তারা সব সময় অপর ব্যক্তি গুলো কে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করতেই পছন্দ করে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

কোন একজন ব্যক্তির মধ্যে থাকা অহংকার নামক জিনিসটা কিন্তু কখনোই হাতি ঘোড়ার সমতুল্য নয়। বরং অহংকর নামক এই জিনিসটি হলো আমাদের মধ্যে থাকা কিছু কিছু মানুষের কাছে পোষা একটি বিষয়। যে বিষয়টি কে কিছু কিছু মানুষ তার নিজের মধ্যে অতি যত্ন সহকারে  পুষে থাকে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে চলার পথে সর্বদাই একটা কথা মাথায় রাখবেন সেটি হলো যে, আমাদের যে জীবন আছে, সেই জীবনের কিন্তু কোন প্রকার নিশ্চয়তা নেই। অর্থাৎ আমরা কখন মারা যাবো, কতক্ষণ বাঁচবো সে সম্পর্কে কিন্তু আমরা নিজেরাও কোনো কিছুই জানিনা। তাহলে এই জীবনটা তে আপনি কেন অহংকার করবেন কেন! আর অন্য মানুষকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য কেন করবেন! তাই ছোট্ট এই জীবনে কখনোই অহংকার কে নিজের মধ্যে ধারণ করবেন না।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

সমাজের অন্য মানুষদের কাছে নিজেকে বড় প্রমাণ করতে চাইছেন! তাহলে ভেবে নিবেন যে আপনার অজান্তেই আপনার মধ্যে অহংকার নামক গুণটি প্রবেশ করে ফেলেছে। তাই যত দ্রুত তার সাথে আপনি এই বদগুনটিকে দূরে ফেলে দিন। নতুবা আপনি আপনার নিজের বিপদ নিজেই ডেকে আনবেন।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

যদি তোমার মধ্যে অহংকার থাকে তাহলে এই অহংকার তোমাকে এতোটাই বিপদে ফেলবে যে বিপদ থেকে বাঁচার কোন পথ খুজে পাবে না। কারণ অতিরিক্ত অহংকার নিজের মধ্যে থাকা জ্ঞান কে নিমজ্জিত করে ফেলে।  যা তোমার ভবিষ্যতে আসা কোনো বিপদে কোন কাজে আসবে না।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

কোন মানুষের মধ্যে অহংকার আছে মানে সেই মানুষটির আধ্যাত্মিক ক্যান্সার রয়েছে। সেই মানুষটির মধ্যে থাকা ভালবাসা, ভালো-মন্দ দিক বিবেচনা করা বিবেক ইত্যাদিকে গ্রাস করে ফেলেছে। সে কখনোই বুঝতে পারবে না যে কোনটি ভাল আর কোনটা মন্দ। হ্যাঁ অহংকার নামক এই আধ্যাত্মিক ক্যান্সার এতটাই ক্ষতিকর একজন মানুষের জন্য।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

যদি কখনো তোমার মনে হয় যে অহংকার তোমার ভেতরে থাকা মর্যাদা কে গ্রাস করে ফেলেছে। যদি কখনো তোমার মনে হয় যে অহংকার তোমার ভিতরে থাকা বিবেককে গ্রাস করে ফেলেছে। তাহলে যত দ্রুত পারো সেই অহংকারকে নিজের কাছ থেকে অনেক দূরে ঠেলে দাও। নয়তো বা এই অহংকার তোমাকে ভবিষ্যতে বড় কোন বিপদে ফেলে দেবে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

জ্ঞান এবং অহংকার এই দুটো দুটোর ব্যস্তানুপাতিক। কারণ একজন ব্যক্তির মধ্যে যত বেশি জ্ঞান বৃদ্ধি পাবে, সেই ব্যক্তির মধ্যে অহংকার এর পরিমাণ ঠিক ততটাই কমতে থাকবে। অপরদিকে কোন ব্যক্তির মধ্যে যত বেশি অহংকার বৃদ্ধি পাবে, সেই ব্যক্তির মধ্যে ক্রমাগত ভাবে জ্ঞান এর পরিমাণ কমতে থাকবে। তাই জীবনে চলার পথে অহংকার এর পরিমাণ নয় বরং জ্ঞানের পরিমাণ বাড়িয়ে তোলার চেষ্টা করুন।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

অন্ধকার মূলত আলোর অনুপস্থিতিতে বৃদ্ধি পায়, অপরদিকে অহংকার মূলত জ্ঞানের অনুপস্থিতিতে বৃদ্ধি পায়। এবার একটি বিষয় চিন্তা করে দেখুন যদি আপনি জ্ঞানের পরিমাণ কে বাড়িয়ে দেন, তাহলে কিন্তু অহংকার নিজে থেকেই অনেক দূরে চলে যাবে। এবং আপনাকে আপনার ভবিষ্যৎ বিপর্যয় থেকে রক্ষা করবে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে চলার পথে একটা কথা সর্বদাই মাথায় রাখবেন সেই কথাটি হলো যে একজন অহংকারী ব্যক্তি কখনোই সত্যকে পছন্দ করে না। কারণ অহংকার নামক এই মরণব্যাধি কখনোই সত্যকে মেনে নিতে চায় না, সে সবসময় চায় মিথ্যার আশ্রয় নিতে।

আরো দেখুন:

-অহংকার নিয়ে উক্তি

কোন একজন ব্যক্তির জীবনের সবচেয়ে বড় শত্রু হল অহংকার। তাই যখনই আপনি আপনার মধ্যে অহংকার নামক এই শত্রুর উপস্থিতি টের পাবেন। সেই মুহূর্তে আপনাকে এই শত্রুকে মেরে ফেলতে হবে। কেননা আপনি যদি এই শত্রু কে আপনার নিজের মধ্যেই নিয়ে বহন করেন। তাহলে কিন্তু আপনি নিজেই নিজেকে ধ্বংসের পথে নিয়ে যাবেন।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে কখনো নিজেকে অহংকার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে যাবেন না ।কারণ অহংকার আপনার মধ্যে থাকা আবেগ,  আপনার মধ্যে থাকা কৌতুহল কে একেবারেই চিরতরে ধ্বংস করে দেবে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

একজন ব্যক্তির মধ্যে থাকা অহংকার সেই ব্যক্তির সকল গুন গুলো কে চিরতরে দূষিত করে দেবে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

যদি আপনার মধ্যে জ্ঞান থাকে তাহলে এই জ্ঞান এর প্রভাবে আপনি নিজেকে নম্র হিসেবে পরিচিত করতে পারবেন। কিন্তু আপনার মধ্যে যদি অহংকার থাকে তাহলে আপনি নিজেই নিজেকে মূর্খ হিসেবে পরিচিত করবেন

-অহংকার নিয়ে উক্তি

আপনার ভালো সময় গুলো নিয়ে কখনোই নিজের মধ্যে অহংকার সৃষ্টি করবেন না। কারণ যদি আপনি আপনার ভাল সময় গুলো নিয়ে নিজের মধ্যে অহংকার সৃষ্টি করেন। তবে সেই ভালো সময় কিন্তু আপনার থেকে অনেক দূরে চলে যাবে। কারণ এই অহংকার এর কারণে আপনার ভালো সময়ে আপনি নিজের অজান্তেই অনেক বড় বড় ভুল করে ফেলবেন।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

অহংকার হল আপনার মধ্যে থাকা সেই গুন যে গুন এর প্রভাবে আপনি অন্য একজন ব্যক্তির কাছে নিজেকে বড় হিসাবে প্রমাণ করতে চাইবেন। এই অহংকার এর মাধ্যমে আপনি অন্য আরেকজন ব্যক্তির কাছে নিজেকে সবচেয়ে বেশি জ্ঞানী মনে করবেন। যা মূলত আপনার বোকামি করার সবচেয়ে প্রথম ধাপ।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

কোন একজন ব্যক্তির যত ছোট হতে থাকবে সেই ব্যক্তির মধ্যে অহংকার এর পরিমাণ ঠিক ততটাই বৃদ্ধি পাবে। কোন একজন ব্যক্তি নিজের মধ্যে লোভ  যত বেশি বৃদ্ধি পাবে, সেই ব্যক্তিটি ততো বেশি অহংকার এর দিকে ধাবিত হবে।

-অহংকার নিয়ে উক্তি

এই পৃথিবীতে সৃষ্ট প্রত্যেকটি সৃষ্টিকে আপনি দুইভাবে ছোট হিসেবে দেখতে পারবেন। তার মধ্যে প্রথমটি হলো আপনি যখন দূর থেকে কোনো কিছু করে দেখবেন, তখন সেই বস্তুটিকে অনেক ছোট মনে হবে। এবং যদি আপনার মধ্যে অহংকার বিরাজমান থাকে, তাহলেও কিন্তু আপনি পৃথিবীর প্রত্যেকটা সৃষ্টিকেই ছোট করে দেখতে পারবেন

-অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে চলার পথে কখনোই নিজের সময় এবং ভাগ্য নিয়ে অহংকার করবেন না। কারণ সময় এবং ভাগ্য কখনোই নিজের আয়ত্তে রাখা যায়না বরং এগুলো নিজের আয়ত্তে চলে। এবং কোনো কারণে যদি আপনার সময় এবং ভাগ্য দূরে চলে যায় তাহলে কিন্তু আপনাকে আর কেউ মনে রাখবে না

অহংকার নিয়ে ইসলামিক উক্তি

বন্ধুরা উপরের আলোচনায় আপনি সেরা কিছু অহংকার নিয়ে উক্তি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। তো এবার আপনাকে আমি জনপ্রিয় কিছু অহংকার নিয়ে ইসলামিক উক্তি সম্পর্কে বলব। আশা করি অহংকার নিয়ে ইসলামিক উক্তি গুলো আপনার অনেক ভালো লাগবে।

1

অহংকার হল মানুষের মধ্যে থাকা সেই গুন, যে গুনটির মাধ্যমে মানুষ সত্য কে উপেক্ষা করবে এবং অপর মানুষ গুলো কে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করবে।

2

যেখানে আমাদের নিজের জীবনের কোনো নিশ্চয়তা নেই, সেখানে অহংকার করা রীতিমতো বোকামি ছাড়া আর কিছুই নয়।

3

আপনার হৃদয় হলো নম্রতার কেন্দ্রবিন্দু কিন্তু আপনার মনে থাকা অহংকার হল নিজে নিজেকে ধ্বংস করার মূল কারণ।

4

অন্যের কাছে নিজেকে বড় ভাবা, অন্যের কাছে নিজেকে জ্ঞানী ভাবার অপর নাম হল অহংকার

5

অহংকার সবসময় নিজের প্রশংসার দাবি করে, কিন্তু অহংকার কখনোই অন্যের প্রশংসা করতে জানেনা।

6

এই পৃথিবীতে চরিত্রের অহংকার সবচেয়ে বড় অহংকার এর মধ্যে পড়ে।

টাকার অহংকার নিয়ে উক্তি

উপরের আলোচনা থেকে আপনি সেরা কিছু অহংকার নিয়ে উক্তি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এর পাশাপাশি আমি চেষ্টা করেছি বেশ কিছু অহংকার নিয়ে ইসলামিক উক্তি শেয়ার করার। এবার আপনাকে আমি জানাবো টাকার অহংকার নিয়ে উক্তি সম্পর্কে।

টাকার অহংকার নিয়ে উক্তি

যদি আপনার মধ্যে টাকার অভাব থাকে, তাহলে সেটি আপনার জীবনের জন্য কোন প্রকার বাধা নয়। তবে আপনার মধ্যে যদি সুবুদ্ধির অভাব থাকে, তবে সেটি হলো আপনার জীবনে সফল হওয়ার সবচেয়ে বড় বাধা। তাই টাকার অভাব নয় বরং সুবুদ্ধির অভাবকে পূরণ করার চেষ্টা করুন।

টাকার অহংকার নিয়ে উক্তি

নিজের টাকার গরমে যে মানুষ গুলো অহংকার প্রকাশ করে। সেই মানুষ গুলোর সামনে নিজেকে অহংকার হিসেবে প্রকাশ করাই শ্রেয়।

টাকার অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে চলার পথে একটি কথা সর্বদাই মাথায় রাখবেন টাকা দিয়ে কেনা একটি প্যান্ট কোন মানুষের শরীর পচে যাওয়ার আগেই কিন্তু পচে যায়। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষকে খুঁজে পাবেন, যারা নিজের সম্পত্তি, গাড়ি-বাড়ি, অর্থ নিয়ে অহংকার করে থাকে। একবার চিন্তা করে দেখুন কি পরিমান বোকা এই মানুষ গুলো।

টাকার অহংকার নিয়ে উক্তি

টাকা হল আমাদের সবার কাছে কিছুই সংখ্যা মাত্র। তবে আপনার দুঃখ যদি এই টাকার কারনে হয়, যদি আপনার দুঃখ এই টাকা না আসার কারণে হয়, তাহলে একটা কথা জেনে রাখবেন, সেটি হলো যে আপনার এই দুঃখ কোনদিনও শেষ হবেনা। কারণ টাকা না পাওয়ার আশা কখনোই শেষ হয় না।

টাকার অহংকার নিয়ে উক্তি

জীবনে চলার পথে কখনোই আপনি নিজের জীবনকে টাকার সাথে মিশিয়ে ফেলবেন না। যদি আপনি কখনও নিজের মূল্যবান জীবনটা কার সাথে মিশে ফেলেন, তাহলে আপনি সবচেয়ে বড় ভুল করবেন।

আরো দেখুন:

অহংকার নিয়ে কিছু কথা

একজন মানুষের মধ্যে যত গুলো খারাপ দিক রয়েছে, তার থেকে সবচেয়ে বড় খারাপ দিক হলো উক্ত ব্যক্তির মধ্যে যে পরিমাণ অহংকার রয়েছে। কেননা একজন অহংকারী ব্যক্তি নিজেই নিজের অজান্তে নিজেকেই বিপর্যয়ের পথে ঠেলে দেয়। তাই আপনার উচিত সবসময় অহংকার কে অনেক দূরে রাখা। কখনই অহংকার কে নিজের করে রাখবেন না। এবং এই অহংকার কে দূরে ঠেলে দিয়ে আপনিই সুখে থাকুন সুস্থ থাকুন এই প্রত্যাশা নিয়েই শেষ করছি আজকের এই আর্টিকেলটি। আর আর্টিকেল এর এই পর্যন্ত আসার জন্য আপনাকে জানাচ্ছি অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex