vlxxviet mms desi xnxx

ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো

0

ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো: আপনি কি  জানতে চান ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার সম্পর্কে? জানতে চান ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো। ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম।

বহুকাল আগে মানুষ তার নিত্যদিনের চাহিদা পূরণ করতেন নিজের আয়ের উপর ভিত্তি করে। নিজের স্বাধ্যের মধ্যে মানুষ নিজের ইচ্ছাগুলো পূরণ করতেন। কখনো কোন স্বপ্ন হয়তো থাকতেন স্বাধ্যের মধ্যে কিংবা কখনো কোন স্বপ্ন থাকতো স্বাধ্যের বাইরে। কিন্তু স্বপ্নতো স্বপ্নই। মানুষের ইচ্ছা, মানুষের আকাঙ্খা, মানুষের চাহিদার পালে হাওয়া লাগিয়েছে ব্যাংকিং ব্যবস্থাসমূহ।

মানুষের স্বপ্ন পূরণের এক আস্থার প্রতীক হিসাবে কাজ করতে ব্যাংকিং ব্যবস্থা। ব্যাংক সমূহ তাদের গ্রাহকদের কথা চিন্তা করে প্রতিবারই নতুন নতুন সুবিধা নিয়ে হাজির হয়ে থাকে আমাদের সামনে। নিত্যনতুন সুযোগ-সুবিধা প্রদান করে ব্যাংকিং ব্যবস্থা স্বগৌরবে এগিয়ে চলেছে বছরের পর বছর। ব্যাংকিং ব্যবস্থা আস্থার এক অন্যতম সেবার নাম হল ক্রেডিট কার্ড। তাই ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবোজানতে হলে বিস্তারিত চোখ রাখুন আজকের আর্টিকেলটিতে।

গুরুত্বপূর্ণ: ভিসা কার্ড করার নিয়ম

বহুকাল পূর্বে মানুষের নিজের ভবিষ্যতের জন্য, নিজের স্বপ্ন পূরণের জন্য, নিজের শখ পূরণ করার জন্য টাকা জমা জমাতেন। কিন্ত নিজের কাছে কি এই টাকা জমা রাখা হয়? প্রতিদিন কোন না কোন প্রয়োজনের সেই টাকা খরচ হয়েই যেত। তাই আর টাকা সঞ্চয় করাটা আর সম্ভব হয়ে উঠতনা মানুষের জীবনে। কিন্ত সময়ের সাথে সাথে মানুষের পছন্দ পাল্টায়, মানুষের চাহিদা পাল্টায়। মানুষ এখন তাই সঞ্চযয়ের জন্য বেছে নিয়েছে ব্যাংকে।

গ্রাহকদের জীবনে সঞ্চয় এর পালে হাওয়া লাগিয়েছে প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থা সমূহ । ব্যাংকিং ব্যবস্থায় গ্রাহকদের কল্যাণে নিত্য নতুন সুযোগ সুবিধা নিয়ে আবির্ভুত হয়েছে ক্রেডিট কার্ড। তাই ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো। কার্ড ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চোখ রাখুন উইকিপিডিয়া বাংলা

ক্রেডিট কার্ড কি?

ক্রেডিট কার্ড মূলত এক ধরনের কার্ড। ব্যাংক সমূহে তাদের গ্রাহকদের নির্দিষ্ট একাউন্টের বিনিময়ে যে কার্ড সুবিধা প্রদান করে তাকে বলা হয় ক্রেডিট কার্ড। এটি একটি  বহুল প্রচলিত এবং জনপ্রিয় একটি কার্ড। প্রায় সকল ধরণের ব্যাংকে তাদের গ্রাহকদের জন্য এই ক্রেডিট কার্ড সুবিধা প্রদান করে থাকে। তাই ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো। ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম জেনে নেই আজকের আলোচনায়।

মূলত আপনার যে ব্যাংকে একাউন্ট রয়েছে সে ব্যাংক এমন একটি কার্ড সুবিধা প্রদান করবে থেকে আপনি আপনার নিত্যদিনের বিভিন্ন ধরণের কাজের ক্ষেত্রে অর্থ খরচ করার মাধ্যম হিসেবে কাজ করে থাকে এই  ক্রেডিট কার্ড।  আপনি নির্দিষ্ট লিমিট পর্যন্ত অর্থ খরচ করতে পারবেন ব্যাংক থেকে সরবরাহকৃত ক্রেডিট কার্ড থেকে।

ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার আমাদের জীবনযাত্রা পাল্টে দিয়েছে। চলুন তাহলে জেনে নেই কি কি সুবিধা আমাদের প্রদান করে থাকে ক্রেডিট কার্ডঃ

  • ক্রেডিট কার্ড এমন একটি কার্ড, যে কার্ডের মাধ্যমে আপনি খুব দ্রুত লেনদেন করতে পারবেন। যেকোনো স্থানে অবস্থান করে  আপনি আপনার পছন্দের কেনাকাটা করতে ব্যবহার করতে পারেন এই কার্ডের দ্বারা।
  • আপনি ক্রেডিট কার্ড দিয়ে যত বেশি সংখ্যক পেমেন্ট করবেন আপনার পেমেন্ট এর উপর আপনি তত বেশি রিওয়ার্ড পাবেন। রিওয়ার্ড মূলত একটি সুবিধা যা আপনার লেনদেমের উপর নির্ভর করে থাকে। আপনার রিওয়ার্ড এর উপর ভিত্তি করে আপনি নানা বিভিন্ন ধরণের ডিসকাউন্ট, পয়েন্ট এবং এক্সট্রা ফ্রি পেমেন্ট পেতে পারে।
  • ধরুণ আপনি কোন ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করছেন কিন্তু সেই ক্রেডিট কার্ডের থেকে যদি আপনাকে অন্য ক্রেডিট কার্ডের সুবিধাদি বেশি মনে হয় আপনি চাইলে নিজের ব্যবহৃত ক্রেডিট কার্ডটি পরিবর্তন করে নিতে পারেন। এতে আপনি আপনার সুবিধা অনুযায়ী কার্ড পছন্দ করে নিতে পারবেন।
  • আপনার ব্যবহৃত ক্রেডিট কার্ডটি যদি চুরি হয় কিংবা হারিয়ে যায় সেই তথ্য যদি আপনি আপনার নিকটবর্তী ব্যাংকে জানাতে পারেন তাহলে আপনি খুব দ্রুত আপনার অর্থ ফেরত সোহো নতুন করে কার্ড পেতে পারেন।
  • আপনি ক্রেডিট কার্ড এর মাধ্যমে খুব  দ্রুত আপনার পছন্দ মত কেনাকাটা করতে পারবেন কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই।

এত্তসকল সুযোগ সুবিধা থাকার কারণে আজকাল সকলে চায় ক্রেডিট কার্ড সুবিধা গ্রহণ করতে। ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো। জানতে হলে সাথে থাকুন।

ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার যোগ্যতা 

ক্রেডিট কার্ড সুবিধা পেতে হলে আপনার মাঝে অবশ্যই কিছু যোগ্যতা থাকতেই হবে। যেসব পেশাজীবীর ব্যক্তিদের আর্থিক স্বচ্ছলতা ভালো তারাই যোগ্যতা  রাখে ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার। কিন্তু আপনার আর্থিক স্বচ্ছলতা ভালো এবং ক্রেডিট কার্ড পাওয়া একজন যোগ্য দাবিদার তা মুখে বললে কেউ বিশ্বাস করবে না বরং আপনাকে ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই কিছু কাগজ দেখতে হবে প্রমান স্বরূপ। ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার জন্য কি ধরণের যোগ্যতার প্রয়োজন তা নিচে তুলে ধরা হলো –

  • ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে 
  1. দুই কপি ছবি।
  2. আপনার ব্যংক একাউন্টের ট্রান্সজেকশনের মেয়াদ ১ বছর দেখতে হবে।
  3. বছরে প্রায় ১০ লক্ষ টাকার লেনদেন দেখতে হবে। 
  4. জাতীয় পরিচয়পত্র লাগবে। 
  5. ট্রেড লাইসেন্স লাগবে। 
  6. রেফারেন্স লাগবে।
  • চাকরিজীবীদের ক্ষেত্রে 
  1. দুই কপি ছবি। 
  2. ৬ মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট দেখতে হবে। -স্যালারির পরিমান মাসিক ৩০ হাজার টাকার বেশি হতে হবে। 
  3. চাকরির মেয়াদ ৬ মাসের অধিক থাকতে হবে। 
  4. টিন সার্টিফিকেট লাগবে। 
  5. ন্যাশনাল আইডি কার্ড লাগবে। 
  6. কোন আত্নীয়ের রেফারেন্স লাগবে।

পেশাজীবীদের ক্ষেত্রে

  1. কোন সম্মানিত পেশায় নিযুক্ত থাকলে সেই পেশায় নিযুক্ত কোন কপি দেখতে হবে। 
  2. দুই কপি ছবি। 
  3. NID Card। 
  4. বিদ্যুৎ কিংবা গ্যাস বিলের কপি। -রেফারেন্স।

ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো

ক্রেডিট কার্ড এমন একটি কার্ড যেখানে আপনার নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ ডিপোজিট থাকে, সেই অর্থ আপনি আপনার নিত্য প্রয়োজনীয় কাজে নির্দিষ্ট পরিমান খরচ করতে পারবেন। পরবর্তীতে সেই টাকা আপনার ব্যাংক একাউন্টে জমা করতে হবে।

ক্রেডিট কার্ডের অত্যাধিক সুযোগ সুবিধার কারণে মানুষ আজকাল সকলেই ক্রেডিট কার্ড সুবিধা গ্রহণ করতে চায়। মূলত আপনার ব্যাংক একাউন্টের অর্থের উপর আপনাকে ক্রেডিট কার্ড প্রদান করা হয়। সেই ক্রেডিট কার্ডে আপনার একাউন্টে নির্দিষ্ট লিমিটের উপর আপনাকে খরচ করতে হবে। কিন্তু নির্দিষ্ট লিমিট উপর অতিরিক্ত টদকা খরচ করলে আপনাকে নানা ধরণের বিড়ম্বনায় পড়তে হবে।কিন্তু অসুবিধা থাকবেই। তাই বলে মানুষ কি সুবিধা গ্রহণ থেকে পিছ পা হবে? ক্রেডিট কার্ড কিভাবে করবেন? ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেই।

ক্রেডিট কার্ড এর অত্যাধিক সুবিধার জন্য সকলের গ্রহণ করতে চায় ক্রেডিট কার্ডের সুবিধা। চলুন তাহলে জেনে আসি কিভাবে বানাবো ক্রেডিট কার্ড –

  • ক্রেডিট কার্ড বানাতে হলে আপনাকে সবার আগে একটি ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে।
  • একটি ব্যাংক একাউন্ট করতে আপনাকে যে যে জিনিস সাথে রাখতে হবে তা হল- 
  1. ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ড্রাইভিং লাইসেন্স। 
  2. ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  3. পুরাতন ব্যাংক হিসাব পত্র।
  4. নমিনির আইডি কার্ড।
  5. নমিনির ছবি। 
  6. নমিনির স্বাক্ষর।
  • কোন ব্যাংক থেকে আপনার একটা আপনার ব্যাংক একাউন্ট খোলার পর আপনাকে সেই একাউন্টে অর্থ জমা রাখতে হবে নির্দিষ্ট পরিমানে।
  • আপনার ব্যাংক একাউন্টে পরিমিত পরিমান অর্থ জমা হয়ে গেলে আপনি যদি কিভাবে করতে হয় ক্রেডিট কার্ড তা জানতে হলে যেতে হবে আপানার যে ব্যাংকে একাউন্ট রয়েছে সেই ব্যাংক কর্তৃপক্ষের নিকট।
  • আপনার আয়ের উৎস, ব্যাংক একাউন্টের হিসাব মিলিয়ে আপনি ভিসা কার্ড পাওয়ার যোগ্য কিনা তা যাচাই করতে হবে।
  • যদি আপনি ভিসা কার্ড পাওয়ার যোগ্য হয়ে থাকেন তাহলে আপনি ভিসা কার্ড সুবিধা গ্রহণ 
  • করতে পারবেন।

কিভাবে অনলাইনে ক্রেডিট কার্ড ফ্রিতে তৈরি করবেন

বর্তমানে মানুষের জীবনযাত্রা হয়ে গেছে ইন্টারনেট কেন্দ্রিক। এখন সকল কাজকর্ম সম্পন্ন হচ্ছে অনলাইনের মাধ্যমে মুহূর্তে। ব্যাংক থেকে ফ্রীতে ক্রেডিট কার্ড তৈরি তার বিকল্প নয়। আপনি চাইলে খুব সহজে আপনার অনলাইনে ক্রেডিট কার্ডটি তৈরি করতে পারেন  খুব সহজে। কিভাবে অনলাইনে ক্রেডিট কার্ড ফ্রিতে তৈরি করবেন চলুন জেনে নেই।

আপনার যদি উপরে আলোচিত যোগ্যতা সমূহ থাকে তাহলে আপনি যোগ্যতা রাখেন ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার জন্য

  • ক্রেডিট কার্ড অনলাইনে পেতে হলে অপার যে ব্যাংকে এ ব্যাংক হিসাবে রয়েছে সেই ব্যাংকে অনলাইন এ ভিজিট করতে হবে।
  • একটি কার্ড করতে যাবতীয় তথ্যসমূহ নির্ভুল ভাবে প্রদান করতে হবে। তথ্যসমূহ পূরণ করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রের স্কেন কপি পাঠাতে হবে।

ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম

সময়ের সাথে সাথে গ্রাহকদের মনে জায়গা করে নিয়েছে ক্রেডিট কার্ড। ক্রেডিট কার্ড তাই সকলের চাহিদার অন্যতম একটি ক্ষেত্রে হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছে। আপনি যদি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনাকে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কে জানতে হবে। মূলত ক্রেডিট কার্ড একটি সারা বিশ্বব্যাপী প্রচলিত কার্ড। আপনি যদি ক্রেডিট কার্ড পেতে চান তাহলে আপনার ব্যাংক একাউন্ট থেকে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা জমা রাখতে হবে। তা না হলে আপনি ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার যোগ্যতা রাখেন না।

নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ জমা হলে আপনি যখন ক্রেডিট কার্ড পাবেন তখন আপনি একটি নির্দিষ্ট লিমিটের মধ্যে আপনার প্রয়জনীয় ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন ক্রেডিট কার্ড।

তবে যদি আপনি ওভার লিমিট আপনার একাউন্টের টাকা খরচ করে থাকেন তাহলে আপনাকে এই  অতিরিক্ত টাকার জন্য আপনাকে এক্সট্রা পেমেন্ট করতে হতে পারে। তাই ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের ক্ষেত্রে লিমিট চেক করে, সাবধানতার সহিত ব্যবহার করা উত্তম।

উপসংহারঃ সময়ের সাথে সাথেই প্রযুক্তির বিকাশে আমাদের জীবনযাত্রার মান পালটে দিয়েছে।ক্রেডিট কার্ড সেই প্রযুক্তির বিকাশের ফলেই ব্যাংকিং ব্যবস্থার অন্যতম একটি সুফল।আশা করি, আজকের আলোচনার মাধ্যমে আপনারা ক্রেডিট কার্ড কিভাবে বানাবো? ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের নিয়ম  সম্পর্কে?জানতে পারবে

Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex