vlxxviet mms desi xnxx

রাগ নিয়ে উক্তি

0

রাগ নিয়ে উক্তি এর সেরা কালেকশন | Quote About Anger

আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছেন, যারা মূলত রাগ নিয়ে উক্তি সম্পর্কে জানতে চায়। আর সে কারণে প্রতিনিয়ত অনেক মানুষ গুগলে রাগ নিয়ে উক্তি, রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস এবং রাগ ভাঙানোর এসএমএস সম্পর্কে জানার জন্য গুগলে সার্চ করে থাকে। তো আপনি যদি রাগ নিয়ে উক্তি সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে আজকের এই আর্টিকেল টি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে। কেননা আজকের এই আর্টিকেলে আমি রাগ নিয়ে উক্তি গুলো কে সুন্দর ভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করব। এবং এই আর্টিকেলে আপনি জনপ্রিয় সব রাগ নিয়ে উক্তি এর সেরা কালেকশন গুলো দেখতে পারবেন।

সত্যি বলতে রাগ হলো আমাদের প্রতিটা মানুষের জন্য বিশাল একটা ফাঁদ। যা মূলত খুব স্বল্প সময়ের মধ্যে আমাদের ব্রেনকে অচল করে দেয়। আর যখন রাগের বশীভূত হয় আমাদের ব্রেন অচল হয়ে যায়। তখন কিন্তু আমাদের পুরো মানুষটি কে আবেগ নিয়ন্ত্রণ করে নেয়। আর আপনি হয়তো জেনে থাকবেন যে অতিরিক্ত আবেগ মানুষের জন্য কখনোই মঙ্গল বয়ে আনে না। আর সে কারণেই যখন আপনি অতিরিক্ত আবেগ এর বশীভূত হবেন। ঠিক তখনই আপনি নানা রকম ভুল কাজ করে ফেলবেন। আর এই ভুল গুলোই একটা সময় আপনার অনুশোচনার কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

আর এই অতিরিক্ত আবেগ জন্মানোর জন্য রাগ বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। যে কারণে আমাদের সবার উচিত নিজের ভেতরে থাকা রাগকে নিয়ন্ত্রন করা। যদি আপনি এই রাগকে নিয়ন্ত্রণ করতে না পারেন। তাহলে আপনার মধ্যে নিজের অজান্তেই অতিরিক্ত আবেগ জমা হবে। এবং সেই আবেগ এর ফলে আপনি নিজের অজান্তেই অনেক বড় বড় ভুল কাজ করে ফেলবেন।

আরো দেখুন: অহংকার নিয়ে উক্তি.

মূলত এই রাগ এর ক্ষতিকর দিক গুলো সম্পর্কে উক্তির মাধ্যমে আলোচনা করার জন্যই এই আর্টিকেল টি লেখা হয়েছে। যদি আপনি রাগ সম্পর্কে এই উক্তি গুলো জানতে চান। তাহলে অবশ্যই চেষ্টা করবেন আজকের পুরো আর্টিকেল টি মনোযোগ সহকারে পড়বেন। আর আপনি যদি এই আর্টিকেল টি পড়ে থাকেন, তাহলে আমার বিশ্বাস যে। এই রাগ নিয়ে উক্তি গুলো জানার পর আপনি কখনোই নিজের মধ্যে রাগ কে প্রাধান্য দিবেন না।

চমৎকার সব রাগ নিয়ে উক্তি

রাগ আমাদের সবার জন্য ক্ষতিকর। বলা যায় আমাদের প্রত্যেকের জন্য একটা ফাঁদ। আর যদি আপনি কোন প্রকারে এই ফাঁদে পা রাখেন, তাহলে আপনি নিজেই নিজের অজান্তে অনেক বড় বড় ভুল করে বসবেন। আর সে কারনেই আমাদের প্রত্যেকের ভেতরে থাকা রাগকে নিয়ন্ত্রন করা উচিত। তবে এবারের আলোচনায় আমি রাগের ক্ষতিকর দিক গুলো কে উক্তির মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করব। আশা করি এই রাগ নিয়ে উক্তি গুলো আপনার অনেক বেশী ভালো লাগবে। তাহলে চলুন এবার সেই রাগ নিয়ে উক্তি গুলো জেনে নেওয়া যাক।

⚔রাগ নিয়ে উক্তি⚔

  • আপনি হয়তো বা জেনে থাকবেন যে, আমাদের ঈমান বিভিন্ন ভাবে নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু এই ঈমান নষ্ট হওয়ার জন্য রাগের গুরুত্ব অপরিসীম। কেননা অতিরিক্ত রাগ যেকোনো একজন মানুষের ঈমান নষ্ট করে দিতে পারে। তাই কখনোই অতিরিক্ত রেগে যাবেন না। বরং নিজের ভেতরে থাকা রাগ কে নিয়ন্ত্রন করার চেষ্টা করবেন।
  • রাগ হল এমন একটি বিষয়, যার মাধ্যমে একজন মানুষের পরিষ্কার মনকে নিমিষেই ঘোলা করে দিতে সক্ষম। তাই কখনোই আপনার রাগ হওয়া উচিত নয়।
  • যখন আপনি অতিরিক্ত পরিমাণে রেগে যাবেন তখন আপনার সাথে একজন পাগলের তুলনা করলে কোন প্রকার ভুল হবেনা একজন পাগলের যেমন সুস্থ মস্তিষ্ক থাকে না ঠিক তেমনি ভাবে আপনি যখন অতিরিক্ত পরিমাণে রেগে যাবেন তখন আপনার মধ্যেই এই সুস্থ মস্তিষ্ক কাজ করবেনা।
  • পৃথিবীতে বেঁচে থাকা প্রত্যেকটা মানুষের হৃদয়কে যদি একটি প্রদীপ এর সাথে তুলনা করা হয়। তাহলে সেই প্রদীপকে নিভে দেওয়ার জন্য আপনার ভেতরে থাকা রাগ ই যথেষ্ট। কেননা এই রাগ সর্বদাই খারাপ পরিস্থিতির সৃষ্টি করে থাকে।
  • যে মানুষ গুলো নিজের ভেতরে থাকা রাগকে নিয়ন্ত্রন করতে পারে। সে মানুষ গুলো সর্বদাই অন্য মানুষের ভালবাসা পেয়ে থাকে। কিন্তু যে মানুষ গুলো নিজের ভেতরে থাকা রাগের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। সে মানুষ গুলো কখনো অন্যের ভালোবাসা পায় না।
  • আপনি যদি রাগের কোনো ভালো প্রতিকার খুঁজতে চান। তাহলে জেনে রাখুন, রাগের সবচেয়ে ভালো প্রতিকার হল বিলম্ব। কেননা রাগ এর মাধ্যমে শুধুমাত্র বিলম্ব হওয়া সম্ভব।

⚔রাগ নিয়ে উক্তি⚔

  1. যে ব্যক্তি কুস্তি লড়াইয়ে অন্যান্য মানুষকে হারিয়ে দেয়, সেই ব্যক্তি প্রকৃত বীর নয়। বরং সেই মানুষ গুলোই হলো প্রকৃত বীর, যে মানুষ গুলো প্রচুর পরিমাণ রাগের সময় নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। কেননা সব পরিস্থিতিতে নিজের রাগ নিয়ন্ত্রণ করা কোনো সহজ কাজ নয়। বরং এই কাজ গুলো সেই মানুষ গুলোর দ্বারাই সম্ভব। যাদের মনে সত্যিকার অর্থেই বীরের মতো সাহস রয়েছে।
  2. আমাদের ভিতর থাকা রাগ হলো নিজের মধ্যে ধরে থাকা এক ধরনের বিষাক্ত পদার্থ। এই বিষাক্ত পদার্থ কখনো বাইরের প্রকৃতিকে নষ্ট করে আবার কখনো কখনো নিজের ভেতরে থাকা মন কে নষ্ট করে দেয়। আর যদি আপনি কখনো এই বিষাক্ত পদার্থ দ্বারা আক্রান্ত হয়ে থাকেন। তাহলে আপনি এক প্রকার বিরল রোগে ভোগেন ভুগবেন।
  3. যদি আপনি অতীতের করা ভুল গুলো কে নিয়ে অনেক বেশি রাগ করেন। তাহলে কিন্তু আপনি আপনার জীবনের বর্তমান সময়কে ভালোবাসতে পারবেন না। কেননা এই রাগ আপনার ভেতরে থাকা আবেগ কে নষ্ট করে দেবে।
  4. যদি আপনি আপনার কোন সমস্যার সমাধান করতে চান। তাহলে কখনোই রাগ নিয়ে সমাধান করার চেষ্টা করতে যাবেন না। কারন আপনার একটা বিষয় জেনে রাখা উচিত যে। রাগ নিয়ে কখনো কোনো সমস্যার সমাধান করা সম্ভব নয়।
  5. রাগ হলো আমাদের মধ্যে একটি অবৈধ আবেগ। আর এই অবৈধ আবেগ তখনই একজন মানুষের মধ্যে বিরাজমান হয়। যখন সেই মানুষটি তার নিজের মস্তিষ্কের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে।

আরো দেখুন: ধৈর্য নিয়ে উক্তি

⚔রাগ নিয়ে উক্তি⚔

  • আপনি যদি ভুলবশত কখনো অতিরিক্ত পরিমাণে একজন এগিয়ে যান তাহলে এই রাগের শাস্তি আপনাকে কেউ দিতে আসবে না বরং যখন আপনি রাগ করবেন তখন সেই রাগ করার শাস্তি আপনি নিজেই পাবেন কেননা রাগের মাথায় কেউ কোনো ভালো কাজ করতে পারে না।
  • রাগ হল দুর্দান্ত এক শক্তির রূপান্তর। যদি আপনি এই শক্তিকে নিজের মধ্যে নিয়ন্ত্রণ করে রাখতে না পারেন। তাহলে এই শক্তি একটা সময় অপশক্তি তে রুপান্তরিত হয়ে যাবে। যা আপনার নিজের জন্য অমঙ্গল বয়ে আনবে।
  • সত্যি বলতে রাগ কখনোই অকারণে হয় না। বরং নির্দিষ্ট সময়ে নির্দিষ্ট কিছু কারণে এই রাগের উৎপত্তি হয়। কিন্তু যেকোনো কারণে আপনার রাগ না হওয়াই উত্তম। বরং আগে আপনাকে ভাবতে হবে যে, সেই সময়ে আপনার রাগ করাটা ঠিক হবে, নাকি ভুল হবে।
  • আপনি যদি এক মিনিটের জন্য রাগ করেন, তাহলে কিন্তু আপনি আপনার জীবন থেকে 60 সেকেন্ডের জন্য সুখ হারিয়ে ফেলবেন। কেননা রাগে বশীভূত হয়ে কখনো সুখ লাভ করা সম্ভব হয় না।
  • কখনো কখনো আপনার রাগ হওয়া উচিত। কেননা আপনার মধ্যে রাগ হওয়ার অধিকার রয়েছে। কিন্তু রাগ হয়ে আপনার কখনো নিজেকে নিষ্ঠুর করা চলবে না। যদি আপনি নিজের মধ্যে নিষ্ঠুরতা কে প্রাধান্য দেন। তাহলে কিন্তু আপনি অনেক বড় ভুল করে ফেলবেন।
  • আপনার মধ্যে থাকা মেজাজ কে সীমার মধ্যে রাখার চেষ্টা করবেন। কেননা এটি যদি কখনো সীমা অতিক্রম করে ফেলে। তাহলে কিন্তু আপনি তাকে কখনোই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন না।

⚔রাগ নিয়ে উক্তি⚔

  1. যদি আপনি কখনো কোন পরিস্থিতিতে অতিরিক্ত পরিমাণে রেগে যান তাহলে সেই সময় একটা কথা মাথায় রাখবেন যে এই রাগ কিন্তু একজন মানুষকে ছোট করে তোলে কেননা রাগের উপযুক্ত হয়ে আপনি এমন কিছু করতে পারেন যার জন্য আপনাকে অনুশোচনা করতে হবে কিন্তু আপনি যদি রাগের বদলে ক্ষমা করতে শিখেন তাহলে কিন্তু ক্ষমা আপনার ব্যক্তিত্বকে বাড়িয়ে তুলতে সহায়তা করবে।
  2. নিজের মধ্যে রাগ ধরে রাখা মানে হল বিষ পান করা। আর এই বিষের মাত্রা এতটাই বেশি যে। এর ফলে আপনি তিলে তিলে আপনার ভেতরে থাকা মনুষ্যত্ব কে মেরে ফেলবেন। তাই কখনো নিজের মধ্যে এই ধরনের বিষ রাখা উচিত নয়।
  3. যখন আপনার মধ্যে অতিরিক্ত পরিমাণে রাগ জন্মাবে। তখন আপনি আপনার আশে পাশের পরিবেশের দিকে না তাকিয়ে। নিজের মনের দিকে তাকানোর চেষ্টা করুন। এবং ভাবতে থাকুন যে, এই রাগ কিভাবে আপনি আপনার নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসবেন।
  4. রাগ কখনো কোন একজন শিক্ষিত জ্ঞানী মানুষের মধ্যে থাকে না। বরং এই রাগ শুধুমাত্র সেই মানুষ গুলোর মধ্যে থাকে। যারা প্রকৃত পক্ষে মূর্খ। কেননা সেই মূর্খ মানুষ গুলো যদি রাগের ক্ষতিকর দিক গুলো সম্পর্কে জানতে পারত। তাহলে কিন্তু তারা কখনোই রাগ করতো না।
  5. যখন আপনার ভেতরে প্রচন্ড পরিমানে রাগ জন্ম নিবে। তখন আপনি 1 থেকে 4 পর্যন্ত গুনতে থাকুন। কিন্তু এতেও যদি আপনার রাগের পরিমাণ না কমে। তাহলে আপনি গুনতে থাকবেন। আর যতক্ষণ পর্যন্ত আপনার রাগ কমবে না, ততক্ষণ পর্যন্ত আপনি এভাবে গুনতেই থাকবেন।

⚔রাগ নিয়ে উক্তি⚔

  • আপনি কি জানেন মানুষের সবচেয়ে বড় দায় বদ্ধতা কি! যদি আপনি না জেনে থাকেন তাহলে শুনে রাখুন। একজন মানুষের সবচেয়ে বড় দায় বদ্ধতা হল তার ভেতরে থাকা ক্রোধ। অতিরিক্ত তাপ যেমন কোন একটি বস্তুকে পুড়িয়ে ফেলতে পারে। ঠিক তেমনি ভাবে অতিরিক্ত রাগ আপনার ভেতরে থাকা মনুষ্যত্ব কে নষ্ট করে দিতে সক্ষম।
  • আপনি যে কাজ টি রাগ দিয়ে শুরু করবেন। সেই কাজটি কিন্তু লজ্জায় শেষ হবে। কেননা রাগ দিয়ে কোন কাজ সঠিক ভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব হয়না।
  • যখন আপনার মনে প্রচন্ড পরিমানে রাগ উঠবে। তখন আপনি সেটাকে খুব সহজেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। তবে সেজন্য আপনাকে নীরবতা পালন করতে হবে। কারণ আপনি যদি নীরবতা পালন করেন। তাহলে আপনার ভেতরে জেগে ওঠা রাগের প্রকাশ ঘটবেনা। এবং ধীরে ধীরে সেই রাগ কমতে শুরু করবে।
  • আপনি যদি রাগ করে কোন ভুল কাজ করে ফেলেন। তাহলে সেই ভুলের শাস্তি দেওয়ার জন্য কোন মানুষের প্রয়োজন হবেনা। বরং আপনি যখন রাগের বশীভূত হয়ে কোন ভুল কাজ করে ফেলবেন। তখন সেই ভুল কাজই আপনাকে শাস্তি প্রদান করবে।
  • রাগ হলো এক ধরনের পঙ্গুর মতো আবেগ। একজন পঙ্গু মানুষ যেমন চলাফেরা করতে পারে না। ঠিক তেমনি ভাবে অতিরিক্ত রাগ আপনার আবেগ কে পঙ্গু করে ফেলবে। এবং আপনি সেই আবেগ কে আর নিজের মধ্যে ধরে রাখতে পারবেন না। বরং সেই আবেগ খুব খারাপ ভাবে প্রকাশ হয়ে যাবে।

⚔রাগ নিয়ে উক্তি⚔

  • বর্তমান পৃথিবীতে যে মানুষ গুলো সত্যিকার অর্থেই জ্ঞানী। সেই মানুষ গুলো সর্বদাই তিনটি জিনিস কে সবচেয়ে বেশি ভয় পাই। আর তাদের ভয় পাওয়া এই তিনটি জিনিস গুলো হলো, ঝড়ের মধ্যে সমুদ্র, চাঁদ বিহীন রাত এবং ভদ্র মানুষের রাগ।
  • একজন মানুষের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের আবেগ থাকে। তবে এইসব আবেগ গুলোর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী আবেগ হলো রাগ। এটি একজন মানুষ কে অনুভব করাতে বাদ্ধ করে।  
  • আপনার মনের মধ্যে এই রাগের পরিমাণ কম থাকলে, তাতে কোন সমস্যা নেই। কিন্তু আপনার মনের মধ্যে যদি এই রাগের পরিমাণ অতিরিক্ত হারে বেড়ে যায়। তাহলে কিন্তু নানা ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হবে।
  • নিজের মধ্যে থাকা ক্রোধ কে নিয়ন্ত্রণ করে রাখা উচিত। কেননা আপনি যদি ক্রোধের ফলে এমন খারাপ কিছু বলে ফেলেন। তাহলে কিন্তু আপনাকে পরবর্তী সময়ে অনুতাপ করতে হবে। যদি আপনি সেই মুহূর্তে সুস্থ মস্তিষ্কে কোন কিছু বলতে না পারেন। তাহলে আপনার সেই সময়ে চুপ থাকাই উত্তম হবে।
  • আমাদের প্রত্যেকটা ব্যক্তির মধ্যে রাগ আছে। তবে এই রাগের ব্যবহার স্থান-কাল এবং পাত্রভেদে প্রকাশ করতে হবে। কিন্তু আপনি যদি এসব বিচার বিবেচনা না করে নিজের ভেতরে থাকা রাগ কে প্রকাশ করেন। তাহলে কিন্তু আপনি অনেক বড় একটা ভুল করে ফেলবেন।

আরো দেখুন: কষ্টের স্ট্যাটাস

সেরা কিছু রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস

প্রিয় পাঠক, উপরের আলোচনায় আপনি চমৎকার সব রাগ নিয়ে উক্তি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আমার আশা নয় বরং দীর্ঘ বিশ্বাস আছে যে, উপরে আলোচিত সেই রাগ নিয়ে উক্তি গুলো আপনার অনেক বেশি ভালো লেগেছে। আর সে কারণে এবার আমি আপনাকে বেশ কিছু রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। চলুন এবার তাহলে সেই রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস গুলো জেনে নেওয়া যাক।

🔘 রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস 🔘

  • একজন মানুষ হিসেবে যখন আপনি ঘুমোতে যাবেন। তখন অবশ্যই আপনার ভেতরে থাকা রাগ গুলো কে ভুলে যাওয়া উচিত। কেননা আপনি যার উপর রাগ করে আছেন। সেই মানুষটি আজকের রাত্রি বেঁচে থাকতে পারবে কিনা সেটা আপনি জানেন না।
  • যদি আপনি রাগের মুহূর্ত গুলো তে নিজেকে শান্ত রাখতে পারেন। তাহলে আপনি আপনার ভবিষ্যতে অনেক বড় বড় প্রতিকূল পরিবেশ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবেন।
  • যখন কোন মানুষ অতিরিক্ত পরিমাণে রেগে যাবে। তখন কোন ভাবেই সেই মানুষটি কে বিরক্ত করতে যাবেন না। কেননা এই বিরক্ত করার কারণে কিন্তু অনেক খারাপ পরিবেশের সৃষ্টি হতে পারে।
  • যদি আপনি অন্য কোন ব্যক্তিকে নিজের ভেতরে থাকা রাগ প্রকাশ করেন। তাহলে সেটি কিন্তু গরম উত্তপ্ত কয়লাকে অন্যের দিকে ছুড়ে ফেলার মতোই কাজ হয়ে যাবে। তাই অন্য কোনো ব্যক্তির উপর রাগ হওয়ার আগে দ্বিতীয়বার আরেক বার ভেবে নিবেন।
  • আমি একদিন প্রচন্ড পরিমানে রাগ করে ছিলাম। কারন সেদিন আমার পায়ে ভাল কোনো জুতো ছিল না। কিন্তু তার পরক্ষণেই আমি দেখতে পাই যে, আমার সামনে বসে থাকা একজন মানুষের দুটো পা নেই। আর সাথে সাথেই আমি আমার রাগ হওয়ার কারণে নিজেই লজ্জিত হয়ে ছিলাম।
  • যখন আপনার প্রচন্ড পরিমানে রাগ উঠবে। তখন আপনি সেই রাগের শেষ পরিণতি সম্পর্কে অনুমান করার চেষ্টা করবেন। যখন আপনি এটি অনুমান করতে পারবেন। তখন আপনার থেকেই রাগ কমতে শুরু করবে।

🔘 রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস 🔘

  • যে মানুষ গুলো খুব সাধারন, সেই মানুষ গুলো যখন প্রচন্ড পরিমানে দুঃখ পায়। তখন তারা কোন কিছুই করে না। কিন্তু সেই মানুষ গুলো যদি একবার রেগে যায়। তাহলে কিন্তু অনেক পরিবর্তন নিয়ে আসতে পারবে।
  • যখন আপনার মধ্যে প্রচন্ড পরিমাণে রাগ থাকবে, যখন আপনি অতিরিক্ত পরিমাণে ক্রোধ নিয়ে থাকবেন। তখন আপনি কখনোই কোন চিঠির উত্তর দিতে যাবেন না।
  • সব কিছুর একটা নির্দিষ্ট সীমাবদ্ধতা থাকা উচিত। ঠিক তেমনি ভাবে আপনার মধ্যে এই রাগের পরিমাণ এর মধ্যে যথেষ্ট সীমাবদ্ধতা থাকতে হবে। নতুবা আপনি অনেক বড় বড় সমস্যার সম্মুখীন হয়ে যাবেন।
  • রাগ নিয়ে কখনোই কোনো বড় সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হয় না। বরং যখন আপনি অতিরিক্ত পরিমাণে রেগে যাবেন। তখন আপনার শরীরের মধ্যে রক্তচাপ অনেক গুণ বেড়ে যাবে।
  • যদি আপনি সর্বদা জন্য কোন একজন ব্যক্তির উপর রাগ প্রকাশ করেন। এবং সেই ব্যক্তিটির প্রতি অভিযোগ প্রকাশ করেন। তাহলে কিন্তু আপনি কখনই সেই ব্যক্তির থেকে ভালোবাসা পাবেন না। কেননা সেই ব্যক্তিটি কখনোই তার মূল্যবান সময় গুলো কে আপনার জন্য ব্যয় করবে না।
  • রাগ হলো এক ধরনের বিষাক্ত নেশার মত। যদি আপনি ভুল বশত নেশায় আসক্ত হয়ে পড়েন। তাহলে কিন্তু আপনি আপনার নিজের মধ্যে থাকা আবেগ গুলো কে হারিয়ে ফেলবেন।
  • সময়ের সাথে সাথে যখন আপনি একজন বুদ্ধিমান মানুষ হিসেবে পরিণত হবেন। তখন আপনি খুব ভাল করেই বুঝতে পারবেন যে, রাগের কোন মূল্য নেই।

আরো দেখুন: ইসলামিক উক্তি।

রাগ ভাঙ্গানোর এসএমএস

প্রিয় পাঠক, উপরের আলোচনা থেকে আপনি সেরা কিছু রাগ নিয়ে উক্তি এবং রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। তবে এগুলো জানার পাশাপাশি এবার আমি আপনাকে বেশ কিছু রাগ ভাঙ্গানোর এসএমএস শেয়ার করব। আর যদি আপনি সেই রাগ ভাঙ্গানোর এসএমএস গুলো জানতে চান। তাহলে নিচের এসএমএস গুলোর দিকে নজর রাখুন।

🔘 রাগ ভাঙ্গানোর এসএমএস 🔘

  1. আপনার ভেতরে থাকা অতিরিক্ত গ্রাহক আপনাকে একেবারে বোকা বানিয়ে ফেলবে।
  2. রাগ নিয়ে আপনি কোন সমস্যার সমাধান করতে পারবেন না। বরং এই সমস্যা আরও বেশি করে বৃদ্ধি পাবে।
  3. আপনি যদি নিজেই নিজের উপর রাগ করেন। তাহলে বুঝবেন যে আপনি ধ্বংসের দিকে অগ্রসর হচ্ছেন।
  4. অতীতের ভুলগুলো নিয়ে কখনোই রাগ করবেন না। কারণ এর ফলে আপনি আপনার বর্তমান সময়কে ভালোবাস তে পারবেন না।
  5. হুট করেই রাগ হয়ে যাবেন না বরং নিজের মধ্যে ক্ষমা করার মত গুন তৈরি করুন।
  6. যখন আপনি খুব রাগান্বিত অবস্থায় থাকবেন। তখন আপনি ভুলেও কোন বড় ধরনের সিদ্ধান্ত নিবেন না।
  7. রাগ কখনোই কোনো কাজের সমাধান করতে পারে না। বরং এটি আমাদের ভেতরে থাকা রক্ত চাপের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়।
  8. যারা প্রকৃত পক্ষে সেরা যোদ্ধা, সেই মানুষ গুলো কখনোই রাগ করেনা।
  9. রাগ হল উত্তপ্ত জ্বলন্ত আগুনের মত। কেননা এই রাগ নিমিষেই সবকিছু কে পুড়িয়ে দিতে পারে।
  10. যদি আপনি রাগের বশে অন্য কোন মানুষকে ঘৃণা করেন। তাহলে আপনি নিজেই নিজের কাছে পরাজিত হয়ে যাবেন।

🔘 রাগ ভাঙ্গানোর এসএমএস 🔘

  • রাগ হল এমন এক ধরনের বাতাস, যা আপনার নিজের মধ্যে থাকা বিবেকের প্রদীপটি নিভিয়ে দিবে।
  • যদি আপনি আপনার নিজের ভেতরে থাকা রাগের পরিমান কে জেদের পর্যায়ে নিয়ে যান। তাহলে আপনি নিজেই বিষ খাওয়ার মত একটি কাজ করে বসবেন।
  • রাগ এমন এক ধরনের আবেগ, যেটি আপনাকে কোনো একটি কাজ করাতে বাধ্য করবে। যে কাজটি আপনি কখনোই করতে চান না।
  • যদি আপনি কখনো কোন সময় কারো কথায় রেগে যান। তাহলে কিন্তু তার কাছে আপনি নিজেই পরাজিত হয়ে যাবেন।
  • রাগ হল বিষাক্ত একটি আগুন এর সমতুল্য। কারণ অতিরিক্ত রাগ ভালো কিছু দিয়ে পুড়িয়ে দিতে পারে।
  • যদি আপনি এক মুহূর্তের জন্য আপনার নিজের মধ্যে থাকা রাগ কে নিয়ন্ত্রন করতে পারেন। তাহলে আপনি শত দিনের দুঃখ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবেন।

আরো দেখুন:

রাগ নিয়ে কিছু কথা

হ্যালো বন্ধুরা, আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলে আমি রাগ নিয়ে উক্তি শেয়ার করার চেষ্টা করেছি। এবং এর পাশাপাশি আমি আপনাদের বেশকিছু রাগ নিয়ে স্ট্যাটাস এবং রাগ ভাঙানোর এসএমএস এর সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছি।

আশা করি এই রাগ নিয়ে উক্তি গুলো আপনার অনেক বেশি ভালো লেগেছে। যদি আপনি এরকম উক্তি নিয়মিত পেতে চান। তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে থাকার চেষ্টা করবেন। আর পুরো আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে জানাচ্ছি অনেক অনেক ধন্যবাদ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

sex videos
pornvideos
xxx sex