কিভাবে সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করা যায়

0

কিভাবে সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করা যায়

তথ্য প্রযুক্তির যুগে আমরা যোগাযোগের জন্য বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করি। বর্তমান বাংলাদেশের ইন্টারনেট ব্যবহার করে মানুষ নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করছে। তবে ইন্টারনেট সংযোগ ছাড়াও যোগাযোগের অন্যতম এবং সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত মাধ্যম হচ্ছে সিম কার্ড। সিম কার্ড ব্যবহার করলে যেকোন সময় যেকোন জায়গা থেকে একজনের অন্যজনের সাথে যোগাযোগ করতে পারে। অনেক সময় বিভিন্ন কারণে ইন্টারনেট সংযোগের ব্যাহত হতে পারে। কিন্তু যদি তার কাছে থাকে সিম কার্ড থাকে তাহলে সেটি ব্যবহার করে তার প্রয়োজন অনুসারে যোগাযোগ করতে পারবে।

আরো পড়ুন: অনলাইন থেকে আপনার আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন

আমরা সিম কার্ড কেনার সময় অবশ্যই সিম কার্ড রেজিস্ট্রেশন করে নিই। রেজিস্ট্রেশন বিহীন সিম কার্ড ব্যবহার করা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। আপনার সিম কার্ডটি রেজিস্ট্রেশন হয়েছে কিনা তা চেক করা সবচেয়ে বেশি জরুরি। কারণ আপনার সিম কার্ড রেজিস্ট্রেশন না হলে আপনি অনেক ক্রাইম এর সাথে যুক্ত হয়ে যেতে পারে। আপনার যোগাযোগ সংযোগ ঠিক রাখার জন্য সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করা খুবই জরুরী। কিন্তু ভাবছেন, কিভাবে সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করব? কোন চিন্তার কারণ নেই কারণ আমরা আপনাকে সেই সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করার সম্পূর্ণ ধারণা দিয়ে দিব।

কিভাবে সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করা যায়

আমাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় সিম কার্ডের রেজিস্ট্রেশন করা অতিজরুরী। এর মাধ্যমে আমরা জানতে পারব আমাদের সিম কার্ড অন্য কোন আইডি রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে কিনা। আপনি চাইলে গোপন এসএমএস কোড এর মাধ্যমে আপনার সিম কার্ডটি কোন আইডি দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা সিটি দেখতে পারবে। 

এই কাজটি করার জন্য সর্বপ্রথম গোপন এসএমএস কোডটি *১৬০০১# ডায়াল করতে হবে। এরপর আপনার যে আইডি কার্ড দিয়ে সন্দেহ হচ্ছে সে আইডি কার্ডটির শেষের চারটি ডিজিট মেনশন করতে হবে। এরপর এসএমএসের মাধ্যমে আপনি এই রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারণা পাবেন। 

আপনি যদি এই ধরনের তথ্য জানতে চান তাহলে আমাদের নিম্নের ইনফরমেশন গুলো খেয়াল করুন। 

  • যে কোন সিম থেকে *১৬০০১# ডায়াল করুন। 
  • এরপর আপনার এনআইডি কার্ড এর শেষের ৪ ডিজিট লিখে সেন্ড করুন। 
  • ফিরতি এসএমএসে আপনার ফলাফল জানতে পারবেন। 

সুতরাং আপনার সিমটি রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে কিনা সেটি চেক করার জন্য আপনি এ ধরনের পথ অবলম্বন করতে পারেন।

কিভাবে সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করা যায়

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম রেজিস্ট্রেশন চেক

আপনার সিমটি বায়োমেট্রিক করা হলে আপনি কিভাবে বুঝবেন আপনার সিমটি রেজিস্ট্রেশন হয়েছে। মূলত বায়োমেট্রিক করার পর আপনার এনআইডি কার্ডের সাথে যে আঙ্গুলের ছাপ দেওয়া থাকে তার সাথে বায়োমেট্রিক করার সময় আপনার আঙ্গুলের ছাপের সাথে মিলানো হয়। এভাবেই বায়োমেট্রিক এবং এনআইডি কার্ডের সাথে মিলে গেলে আপনার সিমটি রেজিস্ট্রেশন হবে। 

আপনি যখন আপনার মোবাইল ফোনে যে কোন সিম থেকে *১৬০০১# নাম্বারে ডায়াল করার পর আপনার এনআইডি কার্ডের শেষের ৪ ডিজিট চাইবে। তখন তারা আপনার এনআইডি কার্ডের সাথে বায়োমেট্রিক ছাপের মিল খুঁজে বের করার চেষ্টা করবে এরপর আপনাকে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল। 

যদি আপনার বায়োমেট্রিক করা আঙ্গুলের ছাপের সাথে জাতীয় পরিচয় পত্রের সাথে আঙ্গুলের ছাপ সম্পূর্ণ মিলে যায় তাহলে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন পজিটিভ জানাবে এবং যদি না মিলে তাহলে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন নেগেটিভ জানাবে। 

জিপি সিম রেজিস্ট্রেশন চেক

আপনি কি আপনার জিপি সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করতে চান? তাহলে আমাদের নিম্নে দেয়া পদ্ধতি অনুসরন করুন। 

  • প্রথমে আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে যান। 
  • তারপরে টাইপ করুন Info ।
  • লিখা হয়ে গেলে মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 4949 নাম্বারে।
  • জিপি সিম কর্তৃক  ফিরতি এসএমএস এর মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেয়া হবে।

জিপি সিম রেজিস্ট্রেশন চেক

এয়ারটেল সিম রেজিস্ট্রেশন চেক

আপনার এয়ারটেল সিমের রেজিস্ট্রেশন হয়েছে? সেটি জানতে চাইলে আমাদের নিম্নের এয়ারটেল সিম  রেজিস্ট্রেশন চেক এর ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে দেখতে পারেন। 

  • আপনার মোবাইল থেকে এই কোডটি ডায়াল করুন *121*4444#

টেলিটক সিম রেজিস্ট্রেশন চেক

আপনি আপনার টেলিটক সিম এর রেজিস্ট্রেশন জানতে চাইলে একটি এসএমএস করলেই হবে। তবে টেলিটক সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করার নিয়ম আছে তা হচ্ছে-

  • প্রথমে আপনাকে মোবাইল থেকে  মেসেজ অপশনে যেতে হবে।
  • তারপর Info লিখতে হবে।
  • মেসেজটি সেন্ড করার জন্য 1600 নাম্বারে ডায়াল করুন।
  • কিছুক্ষন পর  এসএমএস আসবে। আর আপনি এর স্ট্যাটাস জানতে পারবেন আপনার সিমটি রেজিস্ট্রেশন হয়েছে নাকি।

বাংলালিংক সিম রেজিস্ট্রেশন চেক

খুব সহজে শুধু মাত্র একটি কোড ব্যবহার করে বাংলালিংক সিম রেজিস্ট্রেশন চেক করে নিন। আর সেই  ইউএসএসডি কোডটি হচ্ছে-

  • *1600*2#

এবং আপনার বাংলালিংক সিম রেজিস্ট্রেশন সম্পাদন এবং  সিম কত তারিখে রেজিস্ট্রেশন হয়েছে, সেই সম্পর্কে জানার জন্য এই ইউএসএসডি কোডের মাধ্যমে জানতে পারবেন। তা হচ্ছে-

  • *1600*1#

NID দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন হয়েছে

একটি NID কার্ড দিয়ে ১৫টি সিম রেজিষ্টেশন করা যায়। আপনি যদি নির্দিষ্ট কোন সংখ্যা না জানেন বা আপনার কার্ড ব্যবহার করে অন্য কেউ সিম রেজিষ্টেশন করছে নাকি সেটিও জানতে পারবেন।

আপনার NID কার্ড দিয়ে কয়টি সিম রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে  তা জানার জন্য আপনাকে যা যা করতে হবে তা হচ্ছে-

  • আপনার ব্যবহার করা যেকোন সিম থেকে *১৬০০১# ডায়াল করুন। 
  • এরপর আপনার এনআইডি কার্ড এর শেষের ৪ ডিজিট টাইপ করুন এবং সেন্ড করুন।
  • কিছু সময় পর এসএমএসে আপনার ফলাফল জানতে পারবেন। 

জন্ম নিবন্ধন দিয়ে সিম রেজিস্ট্রেশন 

জন্ম নিবন্ধন দিয়ে সিম রেজিষ্টেশন  করা যাবে? না, করা যাবে না। জন্ম নিবন্ধন দিয়ে সিম রেজিষ্টেশন না করার অনেক গুলো কারন আছে। তবে তাও মধ্য অন্যতম হচ্ছে জন্ম নিবন্ধন খুব সহজে যে কেউ তৈরি করতে পারে। তাছাড়া NID কার্ড করার সময় আপনার আঙ্গুলের ছাপ নেয়া হয় কিন্তু জন্ম নিবন্ধন এর সময় তা করা হয় না বলে এটি কার্যকর না। 

সুতরাং, এই কারনে জন্ম নিবন্ধন দিয়ে সিম রেজিষ্টেশন করা যায় না।

সিম রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার নিয়ম

অনেক সময় দেখা যায় আপনি যখন সিম রেজিষ্টেশন করেন তখন কিছু চক্র আপনার ডকুমেন্টস গুলো সংরক্ষন করে রাখে। এরপর তারা সেই ডকুমেন্ট ব্যবহার করে আপনার নামে সিম রেজিষ্টেশন  করে থাকে। সেটি আপনি নিজেই রেজিষ্টেশন কোড ব্যবহার করে জানতে পারবেন এবং পুনরায় সেই সিম বাতিল করতে পারবেন।

অথবা, আপনার কোনো একটি সিম ব্যবহার করছেন না তাই আপনি বাতিল করতে চাইছেন সেই খেত্রেও আপনার সিমটির রেজিষ্টেশন  বাতিল করা যাবে।

আপনার যেকোনো কারন বশত সিম রেজিষ্টেশন বাতিল করার নিয়মঃ-

  • আপ্নার সিমটি যে কোম্পানির হবে সেই সিম কোম্পানিতে যেতে হবে। (এক্ষেত্রে কোন এজেন্ট এর কাছে গেলে হবে না)।
  • তাছাড়া আপনি চাইলে সিম কোম্পানির কাস্টমার কেয়ার নাম্বার এ কল করে নিতে পারেন।
  • আপ্নার সিমটির রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার জন্য অবশ্যই আপনার এনআইডি কার্ডের ফটোকপি এবং ২ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি নিইয়ে যাবেন। 
  • এরপর আপনার সিম রেজিষ্টেশন বাতিল করার সঠিক কারন ব্যাখ্যা করে বাতিল করার আবেদন করতে হবে। তাহলে তারা আপনার সিম রেজিষ্টেশন বাতিল করে দিবেন।
  • অনেক সময় সিম রেজিষ্টেশন  বাতিল করার জন্য থাকাতে জিডি করতে হয়। তখন জিডি করা লাগলে করে নিবেন। 

উপসংহার: নিত্যদিনের যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে সিম কার্ড। আর এটি যদি সুরক্ষিত না হয় তাহলে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অপরাধে যুক্ত হয়ে যেতে পারেন। তাই সুরক্ষিত থাকার জন্য সিম রেজিষ্টেশন করা এবং সিম রেজিষ্টেশন চেক করে নেয়া অতিব প্রয়োজনীয়।

আশা করি আপনারা আমাদের এই কন্টেন্ট এর মাধ্যমে সিম রেজিষ্টেশন চেক করে নিজে সুরক্ষিত থাকবেন এবং অন্যকে সুরক্ষিত রাখতে সাহায্য করবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.